banner

শেষ আপডেট ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১,  ১৯:৫৯  ||   শনিবার, ১৮ই সেপ্টেম্বর ২০২১ ইং, ৩ আশ্বিন ১৪২৮

বেপরোয়া সাতকানিয়ার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু তাহের

বেপরোয়া সাতকানিয়ার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু তাহের

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১২:৪০ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • বেপরোয়া সাতকানিয়ার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু তাহের

নিজস্ব প্রতিবেদক ::
সাতকানিয়ার মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আবু তাহের প্রকাশ আবু তাহের এল এম জি’র বিরুদ্ধে নানা ধরণের অনিয়ম ও দুর্নীতির কথা বেরিয়ে আসতেছে। প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের নানা ধরণের হয়রানি করেই চলেছেন তিনি। এই ধরণের একটা অভিযোগ বাংলাদেশ সরকারের মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ে জমা দিয়েছেন সাতকানিয়ার কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধা।
মুক্তিযোদ্ধা ভাতা দেওয়া, গেজেটভুক্ত করাসহ সরকারী যতধরণের সুযোগ-সুবিধা আছে তার জন্য আবু তাহেরকে দিতে হচ্ছে লাখ লাখ টাকা। যারা টাকা দিতে অপারক তাদের ভাতা পেতে কঠিন হচ্ছে।
মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয় ও জামুকা কর্তৃক আবু তাহেরকে সাতকানিয়া মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটির সভাপতি করায় তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার শুরু করেন।
অমুক্তিযোদ্ধাদের লাখ লাখ টাকা ঘুষ নিয়ে তিনি মুক্তিযোদ্ধা বানিয়েছেন। প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদেও বাদ দিয়েছেন।
খোদ সাতকানিয়া উপজেলার সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডারকেই তালিকা থেকে বাদ দিয়ে মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ে তালিকা পাঠিয়েছেন। অথচ সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রমিজ আহমদ ১৯৭১ সালে ভারত থেকে প্রশিক্ষণ থেকে বাংলাদেশে আসছেন এমন অনেক ছবি আছে।
যাদের নিকট মুক্তিযুদ্ধের কোন কাগজ পত্র নাই( লাল বইয়ে নাম, ওসমানি সনদ ইত্যাদি) এমন লোককেও ঘুষ নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা বানিয়েছেন। নিহত মুক্তিযোদ্ধাদের পরিবার কিংবা সন্তানদের কাছ থেকে লাখ লাখ টাকা ঘুষ নিয়েছেন বলে এমন তথ্যও পাওয়া গেছে।
নুর আহমদ নামের এক প্রকৃত পুলিশ মুক্তিযোদ্ধা তিনি ১লাখ টাকা ঘুষ দিতে পারে নাই বলে উনার ভাতাও বন্ধ করে দিয়েছেন বলে তথ্য পাওয়া গেছে। অথচ মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় মুক্তিযোদ্ধা নুর আহমদের নাম ক্রমিক নং ১৫৮, পরিচিতি নং ০১১৫০০০৮২৭২, নাম নুর আহমদ, পিতা- মোহাম্মদ হোসেন, গ্রাম দক্ষিণ চরতী, ডাকঘর-দুরদুরী, মুক্তিযোদ্ধাদের ভারতীয় তালিকায় (সেক্টর) ২০৫।
প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা চরতী আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতা প্রনব কুমার ধর প্রকাশ রুনু ধর, যার বেসামরিক গেজেট নং০ ৩০১২। আবু তাহেরের দাবীকৃত টাকা দিতে পারে নাই বলে তাকে মৃত্যুর সময় সরকারী সম্মান পর্যন্ত দিতে দেয়নি। এই বিষয়ে সাতকানিয়া থানার সামনে মানববন্ধন হয়েছে। বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় লেখালেখি হয়েছে অনেকবার।


যারা আবু তাহেরের দাবীকৃত টাকা দিতে পারে নাই তাদের নামে ঘরও বরাদ্দ করা হয়নি বলে অভিযোগ আছে। এই বিষয়ে সাতকানিয়ার আশেকের পাড়ার মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম (বেসামারিক গেজেট নং-২১৮৩) সাথে ফোনে(০১৮১৫৮১৬৮২১) যোগাযোগ করা হলে তিনি দি ক্রাইমকে জানান আবু তাহের কোটি কোটি টাকা মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে থেকে হাতিয়ে নিয়েছে । যার কোন প্রতিকার নাই। আমরা যুদ্ধ করেছিলাম ঘুষ দুর্নীতি থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য এখন দেখি খোদ মুক্তিযোদ্ধা কমন্ডারই দুর্নীতি করেইে চলছে। তিনি চিকবাড়ীর মুক্তিযোদ্ধা ডা.কামালের কাছে থেকে ১ লাখ টাকা, খাগরিয়ার মুক্তিযোদ্ধা ফারুকের কাছ থেকে ২লাখ এভাবে অনেকের কাছ থেকে টাকা নিয়েছে।
মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহেরের রোষানলে পড়ে ভাতা পাচ্ছে না আশেকের পাড়ার বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম, বেসামরিক গেজেট নং- ২১৮৩, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের সাতকানিয়া, বেসামরিক গেজেট নং ২৯০৫, বীর মুক্তিযোদ্ধ মোঃ আলী, আমিলাইশ, বেসামরিক গেজেট নং-৩০১৬, বীর মুক্তিযোদ্ধা মনোয়ার হোসাইন, সাতকানিয়া, বেসামরিক গেজেট নং- ২৯৭১, শশাংক বিমল চৌধুরী, চরতী, বেসামরিক গেজেট নং-২৯৯৩, এ.কে.এম সিরাজুল ইসলাম, পুরানগড়, বেসামরিক গেজেট নং- ৩০২৪, শফি আহমদ বাজালিয়া, বেসামরিক গেজেট নং- ২৯৪০ ইত্যাদি আরো অনেক মুক্তিযোদ্ধা ।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বলেন, আমার কাছ থেকে আবু তাহের মুক্তিযোদ্ধোর ভাতার জন্য ১ লাখ নিয়ে আমার বাবার নাম গেজেট করেছে। বেপোয়ারা সাতকানিয়ার মুক্তিযোদ্ধা কমন্ডার আবু তাহের কি আইনের উর্দ্ধে ?
উল্লেখ্য যে, সরকারী গেজেট অনুযায়ী সাতকানিয়ায় মোট মুক্তিযোদ্ধা ২৪০ জন। তাদের মধ্যে ভারতীয় লাল মুক্তিবার্তায় ১৫৫ জন আর বেসামরিক গেজেটে ৫৬ জন, বিজিবি গেজেট ০৫ জন, সেনাবাহিনী গেজেট ০৩জন।  ক্রমশ………

বেপোয়ারা সাতকানিয়ার মুক্তিযোদ্ধা কমন্ডার আবু তাহের, প্রতিবেদন পর্ব ০১