banner

শেষ আপডেট ৫ মে ২০২১,  ২২:১৯  ||   মঙ্গলবার, ১১ই মে ২০২১ ইং, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮

দরিদ্রদের উপহার সামগ্রী ও নগদ অর্থ প্রদান করেছে জেলা প্রশাসন

দরিদ্রদের উপহার সামগ্রী ও নগদ অর্থ প্রদান করেছে জেলা প্রশাসন

১৬ এপ্রিল ২০২১ | ২১:২৮ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • দরিদ্রদের উপহার সামগ্রী ও নগদ অর্থ প্রদান করেছে জেলা প্রশাসন
কোভিড-১৯ জনিত উদ্ভূত পরিস্থিতিতে লকডাউন চলাকালীন কর্মহীন হয়ে পড়া চট্টগ্রাম নগরীর হতদরিদ্র ও অস্বচ্ছল পরিবারের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ১ হাজার প্যাকেট উপহার সামগ্রী (ত্রাণ) প্রদান করেছে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ।আজ শুক্রবার (১৬ এপ্রিল) সকাল ১১টায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নগরীর এম এ আজিজ স্টেডিয়াম জিমনেশিয়াম হলে ২০৬ জনকে ১ লাখ ৩ হাজার টাকা নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে।
উপহার সামগ্রীর প্রতি প্যাকেটের মধ্যে ছিল-৭ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, ১ লিটার সয়াবিন তেল, ২ কেজি আলু, ১ কেজি চিনি ও ১টি সাবান।
চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উপহার সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এস.এম জাকারিয়া, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) নাজমুল আহসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মাসুদ কামাল প্রমূখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার এ বি এম আজাদ এনডিসি বলেন, করোনাকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় জেলা প্রশাসন নগরীর অস্বচ্ছল মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। হতদরিদ্র কোন পরিবার যাতে সরকারি ত্রাণ সহায়তার বাইরে না থাকে সে ব্যাপারে কঠোরভাবে তদারকি করা হবে। এ পরিস্থিতিতে কেউ যাতে অভূক্ত না থাকে সে বিষয়টি প্রাধান্য দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।
সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান বলেন, আমাদের সকলের প্রধানমন্ত্রী দেশের গরীব-দু:খী মানুষের সার্বক্ষণিক খোঁজ খবর রাখেন। করোনাকালে কেউ যাতে অনাহারে ও কষ্টে না থাকে তা দেখার জন্য তিনি প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় গত বুধবার (১৪ এপ্রিল) থেকেই সমাজের অসহায় ও অস্বচ্ছল মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম শুরু করা হয়। কিছু দুঃস্থ মানুষের ঘরে ঘরে গিয়েও ত্রাণ পৌঁছে দেয়া হচ্ছে।
জেলা প্রশাসক জানিয়েছেন, সাহায্য চেয়ে আমাদের কাছে যারা টেলিফোন করছেন বা এসএমএস দিচ্ছেন তাদেরকেও সাহায্য দেয়া হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আমরা সবাই কাজে ফিরে যাবো। লকডাউনে একেবারে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের সহায়তায় সরকারের পাশাপাশি সমাজের ধনাঢ্য ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।