banner

শেষ আপডেট ৫ মে ২০২১,  ২২:১৯  ||   মঙ্গলবার, ১১ই মে ২০২১ ইং, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮

স্বীকৃতি

স্বীকৃতি

৬ মার্চ ২০২১ | ২০:৫২ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • স্বীকৃতি
স্বীকৃতি
অসীম সাহা
৭ই মার্চের ভাষণ পেয়েছে ইউনেস্কোর স্বীকৃতি
জাতির পিতাকে ছোট করে যারা মনে পুষেছিল বিকৃতি
তাদের মুখেই থুতু ছুঁড়ে দিয়ে বিশ্বসভায় শেখ মুজিব
মাথা উঁচু করে নিজেকে রেখেছে, যুক্ত করেছে অগ্নিদীপ।
বিশ্ব দিয়েছে ঐতিহ্যের স্বর্ণখচিত মহান দান;
আজ মনে পড়ে রমনার মাঠে মহাকবি এসে জাগালো প্রাণ।
জাতিরাষ্ট্রের পিতা আমাদের, ধন্য হয়েছে তাঁর ভাষণ
পরাধীনতার নাগপাশ ছিঁড়ে বিশ্বে দিয়েছে যেই আসন।
সেই গৌরবে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবে সকল দেশবাসী
বঙ্গবন্ধু জাতির পিতা, আমরা তোমাকে ভালোবাসি।
স্বদেশ দিয়েছো, পতাকা দিয়েছো, দিয়েছো নিজের জীবনকেও
তোমার প্রেরণা, তোমার সাহস, বেঈমান ছাড়া ভোলেনি কেউ।
মরণেও তুমি অমর হয়েছো, রয়েছো জাতির অন্তরেও
তার স্রোত এসে আছড়ে পড়বে, জাতির হৃদয়ে জাগাবে ঢেউ।
যতোদিন যাবে, ততোদিন তুমি, উজ্জ্বল হয়ে ফুটবে ফুল
তোমার দানের মহিমায় জেনো, বিপদে এ-জাতি পাবেই কূল।
যে ৭ই মার্চ জাতির মন্ত্র, মহানায়কের প্রেরণার সুর
সেই মন্ত্রেই বাঙালিরা যাবে সময় পেরিয়ে অনেক দূর।
ভোলেনি পৃথিবী, সংগ্রামী জাতি, ভোলেনি তা কোনো মহান প্রাণ
তাই তারা আজো ৭ই মার্চে শুধু গেয়ে যায় প্রেরণার গান।
সেই প্রেরণার ভাষণ যে পায় ঐতিহ্যের স্বীকৃতি
এই স্বীকৃতি জাতির জীবনে দেবে না কোনোই বিস্মৃতি।
যেই মহাপ্রাণ জীবনের দামে লিখে দিয়ে গেছে দেশের নাম
বাঙালিরা তাঁকে ভুলতে পারে না, তারাই তো দেবে প্রাণের দাম।
সেই প্রেরণায় চলো আজ, জাতি মিলে যাই সব একস্রোতে
৭ই মার্চকে নিয়ে চলে যাই দূর-দূরান্তে বিশ্বতে।
জাতির পিতার প্রতি হবে জেনো ঋণ শোধবার সেই সুযোগ
বিশ্ববাসীকে সম্মুখে রেখে এ-ভাষণ তবে অমর হোক।