banner

শেষ আপডেট ১০ জানুয়ারী ২০২১,  ২১:০৯  ||   রবিবার, ২৪ই জানুয়ারী ২০২১ ইং, ১১ মাঘ ১৪২৭

টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিষ্ঠানসমূহ দ্রুত ডিজিটালাইজেশনের আওতায় আনা হবে — টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিষ্ঠানসমূহ দ্রুত ডিজিটালাইজেশনের আওতায় আনা হবে — টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

৮ ডিসেম্বর ২০২০ | ১৯:৩৭ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিষ্ঠানসমূহ দ্রুত ডিজিটালাইজেশনের আওতায় আনা হবে — টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী
জনগণের সেবা প্রদানের সাথে সম্পৃক্ত ডাক, টেলিটক, বিটিসিএলসহ টেলিযোগাযোগ বিভাগের প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ডিজিটালাইজেশনের আওতায় আনা হবে। বাটন টিপে সেবাগ্রহীতাগণ সেবা নিতে না পারলে ডিজিটাল বিপ্লব এগিয়ে নেওয়া সম্ভব নয়। তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার সুফল জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে সংশ্লিষ্টদের আরও তৎপর হওয়ার নির্দেশ দেন।মন্ত্রী আজ কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের অধীন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের উদ্ভাবনী ও সেবা সহজীকরণ বিষয়ক ৫ দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে অনলাইনে উপস্থিত থেকে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এসব কথা বলেন।
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণকারীদের প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান কাজিয়ে লাগিয়ে স্ব স্ব কর্মক্ষেত্রে এর যথাযথ প্রয়োগ করতে পারলে সেবাগ্রহীতা জনগণ উপকৃত হবে বলে উল্লেখ করেন।
তিনি বলেন, সরকারের যুগান্তকারী কর্মসূচি হচ্ছে ডিজিটাল বাংলাদেশ কর্মসূচি। ডিজিটাল বাংলাদেশ ঘোষণার ১২ বছর পূর্ণ হতে যাচ্ছে। এ সময়ের মধ্যে বাংলাদেশের বিস্ময়কর রূপান্তর ঘটেছে। এই কর্মসূচি বিশ্বে অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। করোনাকালে উপলব্ধি করতে পেরেছি, এই কর্মসূচি বাস্তবায়িত না হলে ব্যক্তিগত, রাষ্ট্রীয় ও সামাজিক জীবনব্যবস্থা অচল হয়ে যেতো। ডিজিটাল সুযোগ সুবিধার ক্ষেত্রে ইউরোপ আমেরিকাসহ উন্নত দেশের তুলনায় বাংলাদেশ পিছিয়ে নেই বলে মন্ত্রী উল্লেখ করেন।
অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মোঃ আফজাল হোসেন এবং অতিরিক্ত সচিব সেলিমা সুলতানা বক্তৃতা করেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের যুগ্ম-সচিব মুহম্মদ আবদুল হান্নানের সঞ্চালনায় কর্মশালার রিসোর্স পার্সন এটুআই কর্মকর্তা ইফতেখার আলম বিষয়ভিত্তিক ধারণা ব্যাখ্যা করেন।