banner

শেষ আপডেট ১০ জানুয়ারী ২০২১,  ২১:০৯  ||   বুধবার, ২০ই জানুয়ারী ২০২১ ইং, ৭ মাঘ ১৪২৭

ধূমপানমুক্ত সাইনেজ না থাকলে পাবলিক পরিবহনের ফিটনেস প্রদান নিষিদ্ধ—বিআরটিএ 

ধূমপানমুক্ত সাইনেজ না থাকলে পাবলিক পরিবহনের ফিটনেস প্রদান নিষিদ্ধ—বিআরটিএ 

২৩ নভেম্বর ২০২০ | ১৯:৩৯ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ধূমপানমুক্ত সাইনেজ না থাকলে পাবলিক পরিবহনের ফিটনেস প্রদান নিষিদ্ধ—বিআরটিএ 

 

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ধূমপান ও তামাকজাতা দ্রব্য ব্যবহারের ক্ষতিকর দিক বিবেচনা করে “ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন ২০০৫” প্রণয়ন করেছেন।উল্লিখিত আইনের ৮ধারা অনুসারে পাবলিক  পরিবহণের মালিক,তত্তবধায়ক,নিয়ন্ত্রণকারী ব্যক্তি বা ব্যবস্থাপক সংশ্লিষ্ট যানবাহনে “ধূমপান হইতে বিরত থাকুন, ইহাশাস্তিযোগ্য অপরাধ” সংম্বলিত নোটিশ বাংলায় এবং ইংরেজি ভাষায় প্রদর্শনের নির্দেশনা রয়েছে।

২০১৬ সালের ৩১ জানুয়ারী ঢাকায় অনুষ্ঠিত দক্ষিণ এশীয় স্পীকার সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ২০৪০ সালের পূর্বেই বাংলাদেশ থেকে তামাক ও তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার নির্মূলের প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক আয়োজিত ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন ও ক্যাম্পেইন ফর টোব্যাকো ফ্রি কিডস(সিটিএফকে) এর সহযোগিতায় বিআরটিএর সদর কার্যালয় সম্মেলন কক্ষে “পাবলিক পরিবহনে তামাকজাত দ্রব্যের ব্যবহার সংক্রান্ত বেইজলাইন সার্ভের প্রতিবেদন প্রকাশ ও করণীয়” শীর্ষক সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত সভার প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিআরটিএ’র চেয়ারম্যান ও গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অতিরিক্ত সচিব  জনাব নুর মোহাম্মদ মজুমদার। রাজধানীর শতভাগ পাবলিক পরিবহন (বাস) তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন মানছে না আলোচ্য সভায় গবেষণা প্রতিবেদন উপস্থাপনকালে উঠে আসে এ তথ্য চিত্র।

গত ২০১৯ সালের অক্টোবর মাসে রাজধানীর ২২টি রুটে  এবং ৪১৭টি ননএসি বাসে ক্রসসেকশোনাল জরিপ কার্যটি পরিচালিত হয়। জরিপ পরিচালনা কল্পে দৃশ্যমান হয় যে  ৯১.৩% চালক ও হেলপারগণ সরাসরি বাসে ধূমপান করে থাকে। যদিও তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন অনুসারে সকল পাবলিক পরিবহন ১০০% তামাক ও ধূমপানমুক্ত রাখতে হবে। উক্ত সভার অন্যতম সুপারিশ ছিল পাবলিক পরিবহনের ফিটনেস প্রদানকালে ধূমপানমুক্ত সাইনেজ আইন অনুসারে প্রর্দশিত না হলে পরিবহনের ফিটনেস প্রদান  করা হবে না।

এরই, ধারাবাহিকতায় উল্লিখিত সভার সুপারিশ বস্তবায়নের লক্ষ্যে গত ১৮ নভেম্বর ২০২০ তারিখ বিআরটিএ কর্তৃপক্ষের আন্তদপ্তরসমূহে একটি নির্দেশনা প্রদান করেন যে পাবলিক পরিবহনের ফিটনেস প্রদানকালে ধূমপানমুক্ত সাইনেজ প্রর্দশিত রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।যদি কোন পাবলিক পরিবহণে ধূমপানমুক্ত সাইনেজ প্রর্দশন না করে তা হলে বিআরটিএ কর্তৃপক্ষ তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন অনুসারে কঠিন পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।—প্রেস বিজ্ঞপ্তি