banner

শেষ আপডেট ২৩ নভেম্বর ২০২০,  ২২:১২  ||   বৃহষ্পতিবার, ২৬ই নভেম্বর ২০২০ ইং, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

মধুবন গ্রুপ অব ইন্ডাষ্ট্রিজ এর চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ সোলেমান আর নেই

মধুবন গ্রুপ অব ইন্ডাষ্ট্রিজ এর চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ সোলেমান আর নেই

২৩ অক্টোবর ২০২০ | ১৭:৫০ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • মধুবন গ্রুপ অব ইন্ডাষ্ট্রিজ এর চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ সোলেমান আর নেই

প্রেস বিজ্ঞপ্তি: চট্টগ্রাম তথা বাংলাদেশের স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান মধুবন গ্রুপ অব ইন্ডাষ্ট্রিজ এর চেয়ারম্যান, বহু দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অভিভাবক সমাজ সেবক ও সমাজ সংস্কারক আলহাজ্ব মোহাম্মদ সোলায়মান গতকাল রাতে বার্ধক্য জনিত রোগে ঢাকা ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮০ বছর।
আলহাজ্ব মোহাম্মদ সোলায়মান চট্টগ্রামের মিষ্টির ১ম ইন্ডাষ্ট্রিজ প্রতিষ্ঠা করেন। তাঁরই হাত ধরে আজ চট্টগ্রামসহ সারাদেশে মিষ্টির অহরহ প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে।
সাতকানিয়া উপজেলার চিববাড়ী গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন তিনি। মরহুম সোলায়মান বায়তুশ শরফ দরবারের সাথে হৃদ্ধতার সাথে কাজ করে গেছেন। বায়তুশ শরফের একজন একনিষ্ট খাদেম হিসেবে তাঁহার পরিচিতি কম নয়। দেশের খ্যাতিমান আলেম ওলামা ও আর্ন্তজাতিক মোফাস্সিরদের সাথেই তিনি উঠা বসা করতেন। জীবনের প্রতিটি মুহুর্ত ইসলামের খেদমত করে কাটিয়েছেন তিনি। নাসিরাবাদ হাউজিং সোসাইটির একজন বাসিন্দা তিনি।
তিনি নিজ গ্রামে প্রতিষ্ঠা করেছেন চিববাড়ী বায়তুশ শরফ জব্বারিয়া এতিমখানা ও হেফজখানা, দক্ষিণ চিববাড়ী মহিলা (আলিম) মাদরাসা, আল হামেদী দারুল হুফ্ফাজ একাডেমী, বায়তুশ শরফ আল হামেদী ইন্টারন্যাশনাল ইনষ্টিটিউট (কারিগরি প্রতিষ্ঠান)। এছাড়াও তিনি চট্টগ্রাম নগরীর মুরাদপুর লখানা জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি। আজীবন সদস্য ছিলেন তামাকুমন্ডি লেইন বণিক সমিতি রিয়াজ উদ্দিন বাজারম চট্টগ্রাম ডায়াবেটিক হাসপাতাল, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ রোগী কল্যাণ সমিতি ও আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতাল।
মৃত্যুকালে তিনি ৩ ছেলে ও ৭ মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন, বন্ধু-বান্ধব ও গুণগ্রাহী রেখে যান।
২২ অক্টোবর বৃহস্পতিবার আছরের নামাজের পর চট্টগ্রাম বায়তুশ শরফ কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে মরহুমের ১ম জানজা অনুষ্ঠিত হবে। সাতকানিয়া গ্রামের বাড়িতে এশার নামাজের পর রাত ৯টায় ২য় নামাজে জানাজা শেষে তাকে পারিবারিক কবস্থানে দাফন করা হবে।