banner

শেষ আপডেট ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০,  ২১:৪১  ||   বৃহষ্পতিবার, ১ অক্টোবর ২০২০ ইং, ১৬ আশ্বিন ১৪২৭

উত্তর বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে ৩ নং সতর্ক সংকেত

উত্তর বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে ৩ নং সতর্ক সংকেত

৪ অগাস্ট ২০২০ | ২০:২২ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • উত্তর বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে ৩ নং সতর্ক সংকেত

কয়েক দিন ধরে ভ্যাপসা গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন। আজ মঙ্গলবার থেকে বৃষ্টিপাত বাড়ার পূর্বাভাস দিয়েছিল আবহাওয়া অধিদপ্তর। এরই মধ্যে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় বৃষ্টি হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে দেখা দিয়েছে ঝড়ো হাওয়ার শঙ্কা। এজন্য দেশের সমুদ্রবন্দরগুলোকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে রাজধানী ঢাকায় বৃষ্টি হয়েছে। প্রায় এক ঘণ্টার বৃষ্টিতে বিভিন্ন সড়কে দেখা দিয়েছে জলাবদ্ধতা। বৃষ্টি হওয়ায় ভ্যাপসা গরমে কিছুটা স্বস্তির আভাস মিলেছে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, আগামী কয়েক দিন বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বাড়বে। এতে আস্তে আস্তে কমে আসবে তাপমাত্রা। জনজীবনে মিলবে স্বস্তি।

আবহাওয়াবিদ আব্দুর রহমান বলেন, আজকে ঢাকাসহ অনেক জায়গায় বৃষ্টি হচ্ছে৷ সামনে আরও বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে৷ সেক্ষেত্রে সাগরে লঘুচাপ থাকলেও ধীরে ধীরে তাপমাত্রা কমে আসবে। গরম থেকে হয়তো একটু স্বস্তি মিলতে পারে।

ভরা বর্ষার এই সময়েও গত কয়েক দিন বৃষ্টি হয়নি। ঢাকা, খুলনাসহ অনেক জায়গায় বয়ে যাচ্ছিল মৃদু তাপপ্রবাহ। তীব্র গরমে নাভিশ্বাস উঠেছে সবার। সবারই এক প্রশ্ন এই সময়ে কেন এত গরম?

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, গত কয়েক দিন বৃষ্টি না থাকায় গরমটা বেশি অনুভব হচ্ছ। এরসঙ্গে যোগ হয়েছে সাগরে লঘুচাপ। তাই বাতাসে আর্দ্রতা বেড়ে ভ্যাপসা গরম দেখা দিয়েছে দেশের বেশিরভাগ এলাকায়। বিশেষ করে ঢাকা, খুলনাসহ অনেক জায়গায় মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।

সোমবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোরে ৩৮ দশমিক ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর রাজধানী ঢাকায় ছিল ৩৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বেশি গরম অনুভূত হওয়ার বিষয়ে সিনিয়র আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ বলেন, সাগরে একটি লঘুচাপ রয়েছে। বৃষ্টিও তুলনামূলক কম রয়েছে। এমন আবহাওয়ায় গরমও বেশি অনুভূত হচ্ছে। আগামী কয়েক দিন বৃষ্টির প্রবণতা থাকবে বলে জানিয়েছেন বজলুর রশীদ।

এদিকে মঙ্গলবার সকালে আবহাওয়ার বিশেষ বুলেটিনে বলা হয়, লঘুচাপ আর মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেজন্য চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

সেই সঙ্গে উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সন্দ্বীপ, সীতাকুণ্ড, রাঙ্গামাটি, ফেনী, চাঁদপুর, মাইজদীকোর্ট অঞ্চলসহ রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, সিলেট ও ময়মনসিংহ বিভাগের উপর দিয়ে বয়ে চলা মৃদু তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে। সারা দেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি থেকে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা রয়েছে।