banner

শেষ আপডেট ১০ অগাস্ট ২০২০,  ২০:০৭  ||   সোমবার, ১০ই আগষ্ট ২০২০ ইং, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭

করোনা সংক্রামিত তিন মাসে ১০ হাজার, মৃত্যু ৬ জন

করোনা সংক্রামিত তিন মাসে ১০ হাজার, মৃত্যু ৬ জন

৬ জুলাই ২০২০ | ১৯:৪০ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • করোনা সংক্রামিত তিন মাসে ১০ হাজার, মৃত্যু ৬ জন

ক্রাইম প্রতিবেদক : করোনায় আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রামে একদিনে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া নতুন করে শনাক্ত হয়েছে ২৯২ জন। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১০ হাজার ১৮০ জন।আজ সোমবার ৬ জুলাই  সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়।

জানা গেছে, সামাজিক সংক্রমণের শুরু থেকে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। চট্টগ্রামের প্রথম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয় গত ৩ এপ্রিলে। এরপর থেকে গত ৯৪ দিনে আক্রান্ত হয়েছে ১০ হাজার ১৮০ জন। সংখ্যা হিসেবে গড় আক্রান্ত ১০৯ জন হলেও পূর্বের তুলনায় নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়ার কারণে আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে।
তথ্য অনুযায়ী, চট্টগ্রামের ৬টি ল্যাব ও কক্সবাজার ল্যাবে মোট ১ হাজার ৩১৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) ল্যাবে ২১৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪০ জন করোনা পজেটিভ রোগী শনাক্ত হয়। এদিকে বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) ১৩৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে শনাক্ত হয় আরও ৬ জন।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ৪৭৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ৮৪ জন করোনা পজেটিভ পাওয়া গেছে। অনদিকে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিম্যাল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ে (সিভাসু) ২২৪টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪৬ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস পাওয়া যায়। এছাড়া বেসরকারি ইম্পেরিয়াল হাসপাতালে ১৭৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ৭৩ জন এবং শেভরণ ক্লিনিক্যাল ল্যাবরেটরিতে ৯৩টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪১ জন শনাক্ত হয়।

অন্যদিকে, কক্সবাজার মেডিক্যাল কলেজে চট্টগ্রামের চারটি মাত্র নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে আরও দুই জনের শরীরে করোনা পজেটিভ পাওয়া যায়।
চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৩১৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। নতুন আক্রান্ত হয়েছে ২৯২ জন। এদের মধ্যে নগরে ২৩২ জন এবং উপজেলায় ৬০ জন। এছাড়া একদিনে সুস্থ হয়েছেন ২১ জন।

জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের তথ্য-উপাত্ত পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসেব অনুযায়ী যতজন আক্রান্ত হওয়ার কথা ছিল ততজনের নমুনা পরীক্ষা ও চট্টগ্রামে হয়নি।তাই এ সমীকরণ পৃথিবীর অন্যান্য দেশের সাথে মিললেও মিলেনি বাংলাদেশের সাথে।

পরিসংখ্যানে দেখা যায়, চট্টগ্রামে নমুনা পরীক্ষা ও আক্রান্তের সংখ্যা গত ৯৩ দিনের বিবেচনায় আগামী ৩০ দিনে আক্রান্তের সংখ্যা হতে পারে প্রায় ৮ হাজারের অধিক। তবে এরমধ্যে যদি নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়ানো হয়, তাহলে আক্রান্তের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।