banner

শেষ আপডেট ১৫ জুলাই ২০২০,  ০৯:৪৮  ||   বুধবার, ১৫ই জুলাই ২০২০ ইং, ৩১ আষাঢ় ১৪২৭

রেলওয়ের অর্থায়নে সিআরবি চত্বরে স্থাপিত হবে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল

রেলওয়ের অর্থায়নে সিআরবি চত্বরে স্থাপিত হবে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল

১৩ জানুয়ারী ২০২০ | ২১:০৮ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • রেলওয়ের অর্থায়নে সিআরবি চত্বরে স্থাপিত হবে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল

ক্রাইম প্রতিবেদকঃ  রেলওয়ের অর্থায়নে নগরের সেন্ট্রাল রেলওয়ে বিল্ডিং (সিআরবি) গোল চত্বর মোড়ে স্থাপিত হচ্ছে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল।আজ সোমবার দুপুর ১২টায় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালটি স্থাপনের জায়গা পরিদর্শন করেন রেলপথ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত  সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী। এ সময় তিনি বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল বসানোর ঘোষণা দেন। পরিদর্শনকালে রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) নাসির উদ্দিন আহমেদ, প্রধান প্রকৌশলী সবুক্তগীন, প্রধান ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা ইশরাত রেজাসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
পরিদর্শন শেষে এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী বলেন, রেলওয়ের অর্থায়নে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালটি স্থাপন করা হবে। ইতোমধ্যে আমরা বেশ কয়েকটি ডিজাইন দেখেছি। বঙ্গবন্ধুর আকর্ষণীয় একটি ম্যুরাল এখানে স্থাপন করা হবে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এ ম্যুরালটি স্থাপন করা হচ্ছে। তিনি বলেন, পাশেই আন্তর্জাতিক মানের রেডিসন ব্ল হোটেল।  দেশি-বিদেশি অতিথিরা সিআরবিতে ঘুরতে আসেন। তাই সিআরবিকে সিঙ্গাপুরের মতো একটি সুন্দর জায়গায় রূপান্তর করতে চাই।
এর আগে গোল চত্বরে ম্যুরাল স্থাপনের ঘোষণা দিয়ে চত্বরের চারপাশ ঘুরে দেখেন ফজলে করিম। তিনি জিএমকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, আপনার অফিসের সামনে পরিত্যক্ত গাড়ি কেন? এই যে ভবনের এই পাশ থেকে ওই পাশ দেখা যাচ্ছে সেখানে কয়েকটা ইট গেঁথে দিলে কী হতো? যত্রতত্র ময়লা কেন? সড়কজুড়ে ফুলের চারা রোপণ করলে সুনাম বাড়তো না কমতো? রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) নাসির উদ্দিন আহমেদকে এরকম নানা প্রশ্নবাণে জর্জরিত করেন রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী।
জিএম নাসির উদ্দিন আহমেদকে ফজলে করিম বলেন, চত্বরে আশেপাশে কারা ময়লা ফেলে? তাদের নাম দেন, তাদের এখানে থাকার অধিকার নেই। যারা যত্রতত্র ময়লা ফেলছে, এগুলো নিয়ে তাদের ঘরের মধ্যে ফেলেন। দেখবেন ময়লা আর ফেলবে না।