banner

শেষ আপডেট ২৭ জানুয়ারী ২০২০,  ২০:৫৫  ||   সোমবার, ২৭ই জানুয়ারী ২০২০ ইং, ১৪ মাঘ ১৪২৬

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ : খাজনা পূণগ্রহনসহ লিজ নবায়ন না করলে কোটি টাকার লোকসানে পড়বে ব্যবসায়ীরা

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ : খাজনা পূণগ্রহনসহ লিজ নবায়ন না করলে কোটি টাকার লোকসানে পড়বে ব্যবসায়ীরা

৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২০:২৩ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ : খাজনা পূণগ্রহনসহ লিজ নবায়ন না করলে কোটি টাকার লোকসানে পড়বে ব্যবসায়ীরা

ক্রাইম প্রতিবেদকঃ চট্টগ্রাম রেলওয়ে পাহাড়তলী বাজারের বালুয়া দিঘীর দক্ষিন পাড়ের এ ব্লকের ব্যবসায়ীরা আতংকে রয়েছে। এখানকার প্রায় তিনশতাধিক দোকান মালিকদের বর্ধিত অংশের খাজনা পূণগ্রহনসহ লিজ নবায়ন না করলে ব্যবসায়িরা ক্ষতি গ্রস্থ হওয়ার পাশাপাশি ব্যাংক ঋণগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা কোটি কোটি টাকা লোকশানে পড়ার আশংকায়  আতংকে রয়েছে। চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে ভুক্তভোগী পাহাড়তলী রেলওয়ে বাজার এ ব্লক ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতি এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান।
সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ব্যবসায়ি সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব কামাল উদ্দিন বলেন, এখানকার দোকান মালিক ও কর্মচারীগণকে বাঁচাতে চট্টগ্রাম রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল কৃর্তক ব্যবসায়ীরা তাদের লাইন্সেস নবায়নের দাবী জানাছে। লিখিব বক্তব্যে বলা হয়, বন্দর নগরী চট্টগ্রামে দ্বিতীয় বৃহত্তর বানিজ্যিক এলাকা হিসেবে আজ থেকে প্রায় শত বর্ষের ঐতিহ্যের লালিত ও সুপরিচিত চট্টগ্রাম রেলওয়ে পাহাড়তলী বাজার। এই বাজারে তিনশতাধিকেরও অধিক ব্যবসায়ি দীর্ঘদিন ধরে এই বিপনী কেন্দ্রে ব্যবসা পরিচালনার মাধ্যমে সরকারকে নিয়মিত রাজস্ব প্রদান করিয়া আসিতেছে।
ব্যবসায়িরা বলেন রেলওয়ে খাজনা, সিটি কর্পোরেশনের ট্রেড লাইসেন্স, কৃষিপণ্য লাইসেন্স, ফুড গ্রেইন, আয়কর ইত্যাদি নিয়মিত পরিশোধ করছি। যা সরকারের “সবাই মিলে কর দিবো সবাই মিলে দেশ গড়বো”এই শ্লোগানের সাথে একমত প্রকাশ করে আসছি।
চট্টগ্রাম রেলওয়ে পাহাড়তলী বাজারের বালুয়া দিঘীর দক্ষিন পাড়ের এ ব্লকের এর দোকান মালিকদের বর্ধিত অংশের খাজনা পূণগ্রহনসহ লিজ নবায়ন না করিলে ব্যবসায়িরা ক্ষতি গ্রস্থ হওয়ার পাশাপাশি ব্যাংক ঋণগ্রস্থ ব্যবসায়ীরা কোটি কোটি টাকা লোকশানে পড়বে বলে জানান।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দ বলেন, রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের নিকট বার বার যোগাযোগ করেও নানা অজুহাতে পূণনবায়ন না করার কারণে সরকার রাজস্ব বঞ্চিত হচ্ছে উল্লেখ করে ব্যবসায়িক নেতারা বলেন, রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের কর্মকর্তারা ষ্ট্রেশন সংলগ্ন হাজার কোটি টাকার সম্পদ নাম মাত্র মূল্যে লিজ দিলেও নানা অজুহাতে দেখিয়ে রেলওয়ে পাহাড়তলী বাজারের বলুয়া দিঘীর দক্ষিন পাড়ের এ ব্লকের এর দোকান মালিকদের বর্ধিত অংশের নবায়ন না করার বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ডি.টি রোড বনিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক এস এম নিজাম উদ্দিন, এডভোকেট জামাল উদ্দিন, সমিতির সহ সভাপতি মোহাম্মদ আজাদ, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবুল হাসেম, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মামুন, অর্থ সম্পাদক মোহাম্মদ এমদাদুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক জুলফিকার আলী হায়দার, ব্যবসায়ী আলহাজ্ব মোহাম্মদ ছাইদুল হক, আলহাজ জাহাঙ্গীর আলম, আহমদ হোসেন(আমু), হাজী সেলিম উল্লাহ সওদাগর, মোহাম্মদ আবুল বাহার প্রমুখ।