banner

শেষ আপডেট ১০ ডিসেম্বর ২০১৯,  ২০:৪৮  ||   মঙ্গলবার, ১০ই ডিসেম্বর ২০১৯ ইং, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

পেকুয়ায় অবৈধ ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের ব্যবসা!

পেকুয়ায় অবৈধ ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের ব্যবসা!

১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ২২:২৬ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • পেকুয়ায় অবৈধ ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেটের ব্যবসা!

মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া : কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলায় সরকারী সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ছাড়াই ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ নিয়ে অবৈধ ভাবে ইন্টারনেটের ব্যবসা করছে ‘‘আইটি হোম ডট সিটি’’ নামের একটি লাইসেন্সবিহীন অবৈধ প্রতিষ্টান। ঢাকার একটি আইএসপি কোম্পানির নাম ভাঙ্গিয়ে পেকুয়া বাজারের এসডি সিটি সেন্টারের দ্বিতীয় ৩য় তলায় অফিস খুলে অবৈধ ভাবে নেট ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে শাহাব উদ্দিন নামের এক যুবক। সরকারি কোনো বৈধ অনুমোদন ব্যতীত ইন্টারনেটের সংযোগের ব্যবসা করছে সাহাব উদ্দিন। ফলে ওই ব্যক্তি সরকারী আইন লংঘনের পাশপাশি সরকার রাজস্বও ফাঁকি দিচ্ছে। এছাড়াও সাহাব উদ্দিন পেকুয়া বাজারের এসডি সিটি সেন্টারের ৩য় তলার উপর একটি সুউচ্চ টাউয়ার স্থাপন করে সেখানে শক্তিশালী তরঙ্গ লাগিয়ে পেকুয়ার পাশ^বর্তী কুতুবদিয়া উপজেলা সদরের বড়ঘোপ বাজারেও অবৈধভাবে ব্রডব্যান্ডের শাখা স্থাপন করেছে।
পেকুয়ার একজন আইটি বিশেষজ্ঞ জানান, পেকুয়ার রাজাখালীর সাহাব উদ্দিন নামের ওই যুবক ঢাকার একটি আইএসপি কোম্পানি থেকে ব্যক্তিগত ব্যবহারের নামে একটি ওয়ান ইউজার সংযোগ কিনে নেয়। পরবর্তীতে পেকুয়া বাজারের এসডি সিটি সেন্টারের ৩য় তলায় অফিস ভাড়া নিয়ে ব্যবসা শুরু করেন। এই আইপি অ্যাড্রেস ব্যবহার করে পেকুয়া বাজার ও আশেপাশে প্রায় শতাধিক সংযোগ প্রদান করেছে। পেকুয়া বাজারে আইটি হোম ডট সিটি নামের ওই অবৈধ প্রতিষ্টান প্রথমেই ৩-১৫ এমবিপিএস ব্যান্ডউইথ আর ৩০-৪০ জন গ্রাহক নিয়ে শুরু করেছিলেন।  এখানে একটি আইপি অ্যাড্রেসের মাধ্যমে অসংখ্য ইন্টারনেট ব্যবহারকারী সংযোগ প্রদান করা হয়। ফলে প্রত্যেক ব্যবহারকারীর আলাদা আলাদা আইপি অ্যাড্রেস থাকে না। যার ফলে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের পরিচয় নিশ্চিত করা ক্রমশ দুরূহ হয়ে পড়ছে
যার ফরল এই অবৈধ ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করে অপরাধীরা সাইবার অপরাধ, ভূঁয়া ফেসবুক একাউন্ট খুলে সম্মানী লোকের সম্মানহানি, ফেসবুকে সরকার বিরোধী বিভিন্ন অপপ্রচার এবং আইন-শৃঙ্খলা পরিপন্থি কাজে জড়িয়ে পড়ছে।
জানা গেছে, লাইসেন্স ছাড়া কোনভাবেই ইন্টারনেট সেবা দেয়া যাবে না। যেসব প্রতিষ্ঠান লাইসেন্স ছাড়া ইন্টারনেট সেবা দিচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে অভিযান চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিটিআরসি। সম্প্রতি কমিশনের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। হাটে-বাজারে অবৈধ আইএসপি (ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার) ও সাইবার ক্যাফে পরিচালনাকারী ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযান চালাতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) এর আগে কয়েক দফা অবৈধ সাইবার ক্যাফেসহ ইন্টারনেট সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোকে সতর্ক করে দিয়ে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এতেও অবৈধভাবে ইন্টারনেট সরবরাহ ও সাইবার ক্যাফে বন্ধ হয়নি।
টেলিযোগাযোগ আইন অনুযায়ী লাইসেন্স ছাড়া ইন্টারনেট সংক্রান্ত কোন ব্যবসা পরিচালনা করা যাবে না। এরপরও পেকুয়া বাজারে আইটি হোম ডট সিটি নামের একটি ভূঁইফোঁড় প্রতিষ্টান গত কয়েক মাস ধরে ইন্টারনেটভিত্তিক অবৈধভাবে ব্যবসা চালাচ্ছে।
জানা গেছে, ২০০১ সালের বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইনের বিধান অনুযায়ী সাইবার ক্যাফে পরিচালনা, ইন্টারনেট সেবা প্রদানসহ যে কোন টেলিযোগাযোগ সেবা প্রদানের জন্য কমিশন হতে লাইসেন্স গ্রহণ বাধ্যতামূলক করা হয়। কিন্তু পেকুয়া বাজারের আইটি হোম ডট সিটি নামের প্রতিষ্টানটি লাইসেন্স ছাড়াই ইন্টারনেট ব্রডব্যান্ড ব্যবসা পরিচালনা করে যাচ্ছে। টেলিযোগাযোগ আইনের ৩৫ ধারার বিধান অনুযায়ী, লাইসেন্স ব্যতীত টেলিযোগাযোগ যন্ত্রপাতি স্থাপনসহ সেবা প্রদান করা একটি অপরাধ। এজন্য আইনে অনধিক ১০ বছর কারাদন্ড ও অর্থদন্ড বা উভয় দন্ডে দন্ডণীয় করার বিধান রয়েছে। কমিশন থেকে অবৈধ ইন্টারনেট এবং সাইবার ক্যাফে পরিচালনাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অভিযান পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। সারাদেশে যে কোন স্থানে যে কোন প্রতিষ্ঠান, ব্যক্তিকে কমিশন থেকে লাইসেন্স নিতে হবে।
এর আগে গত ২০১৬ সালের ২০ মে বিটিআরসি একটি নির্দেশনা জারি করে। এতে বলা হয়, বিভিন্ন ইন্টারনেট সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান বা আইএসপি লাইসেন্সের শর্ত না মেনে বিভিন্ন অবৈধ কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এর মধ্যে রয়েছে, বিভিন্ন লাইসেন্সবিহীন প্রতিষ্ঠানকে নিয়োগ দেওয়ার মাধ্যমে ব্যবসা পরিচালনা। অন্য প্রতিষ্ঠানের কাছে ফাইবার ভাড়া, ভাগাভাগি করা ও রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব দেওয়া। কেবল টিভি অপারেটরদের মাধ্যমে আইএসপি ব্যবসা করা। গ্রাহকের বিলের কপি ও ফরম সংরক্ষণ না করা এবং নিয়মিত কর পরিশোধ না করা। বিটিআরসির এই নিদের্শনা অমান্য করেই পেকুয়া বাজারে অবৈধভাবে ব্রডব্যান্ড ব্যবসা চালাচ্ছে পেকুয়া আইটি হোম ডট সিটি নামের প্রতিষ্টান।
অভিযোগের ব্যাপারে পেকুয়া বাজারে এসডি সিটি সেন্টারের ৩য় তলায় অবস্থিত ‘‘আইটি হোম ডট সিটি’’ মালিক পরিচয়ধারী সাহাব উদ্দিনের সাথে ১৯ নভেম্বর দুপুরে মুঠোফানের মাধ্যমে বক্তব্য নেওয়ার জন্য যোগাযোগ করা হয়। এসময় তিনি এ প্রতিনিধিকে বলেন,‘‘ঢাকার একটি আইএসপি কোম্পানির মাধ্যমে পেকুয়া বাজারে ইন্টারনেট সেবা দেওয়া হচ্ছে। তার কাছে সব বৈধ কাগজপত্র রয়েছে। বৈধ কাগজপত্র দেখতে চাইলে তিনি পরে দেখাবেন বলে এ প্রতিনিধিকে জানান।