banner

শেষ আপডেট ৭ ডিসেম্বর ২০১৯,  ২১:১৮  ||   শনিবার, ৭ই ডিসেম্বর ২০১৯ ইং, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

নগরীর ৬পয়েন্টে ৪৫ টাকায় টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি শুরু

নগরীর ৬পয়েন্টে ৪৫ টাকায় টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি শুরু

১৯ নভেম্বর ২০১৯ | ২১:২৮ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • নগরীর ৬পয়েন্টে ৪৫ টাকায় টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রি শুরু

ক্রাইম প্রতিবেদকঃ  বাজার সহনীয় রাখার লক্ষ্যে চট্টগ্রাম নগরীর ৬টি পয়েন্টে কেজিপ্রতি ৪৫ টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি শুরু করেছে ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি)। এতে প্রতিজনকে ১ কেজি করে পেঁয়াজ কেনার সুযোগ দেয়া হচ্ছে। আজ মঙ্গলবার সকাল ১১টা থেকে নগরীর কোতোয়ালী, বায়েজিদ, পাহাড়তলী, হালিশহর, বন্দর ও ইপিজেড থানার সামনে এ কার্যক্রম চালায় টিসিবির চট্টগ্রাম আঞ্চলিক কার্যালয়।
সরেজমিনে দেখা গেছে, দুপুর থেকে টিসিবির ট্রাকগুলো নির্দিষ্ট পয়েন্টে পেঁয়াজ নিয়ে হাজির হয়। এ সময় কম দামে পেঁয়াজ কিনতে বেসামাল ভিড় করে নিন্মশ্রেনীর মানুষরা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, পুলিশ সুশৃঙ্খলভাবে পেঁয়াজ বিক্রিতে সহযোগিতা করেন। তবে ভিড় ঠেলে ন্যায্যমূল্যে পেঁয়াজ কিনতে পেরে খুশি নিম্নবিত্ত শ্রেণির মানুষ।
সরওয়ার আবদুল কালাম নামের একজন ক্রেতা বলেন, জহুর হকার্স মার্কেটে শিশুদের জন্য শীতের পোশাক কিনতে যাচ্ছিলাম। হঠাৎ দেখলাম পেঁয়াজের ট্রাক। ৪৫ টাকায় এক কেজি কিনলাম। মান ভালো দাম কম।
তিনি বলেন, খুচরা বাজারে যখন ১৫০ টাকা ছাড়িয়ে গেল, তারপর আর পেঁয়াজ কিনিনি। পেঁয়াজ ছাড়াই রান্না হয়েছে বেশ কয়েক দিন। আজই আবার প্রথম কিনলাম।
টিসিবির চট্টগ্রাম আঞ্চলিক প্রধান জামাল উদ্দিন আহমেদ জানান, আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে নগরের ৬টি পয়েন্টে পেঁয়াজ বিক্রি করা হচ্ছে। প্রতি ট্রাকে ১ টন করে প্রথম দিন ৬টি  ট্রাকে বিক্রি করা হচ্ছে। একজন সর্বোচ্চ ১ কেজি পেঁয়াজ কিনতে পারবেন। তিনি বলেন, প্রতিটি ট্রাকে প্রতিদিন ১ টন করে পেঁয়াজ বিক্রি করা হবে। সকাল ১১ টা থেকে শুরু হয়ে যতক্ষণ পেঁয়াজ থাকবে ততক্ষণ বিক্রি চলবে। কতদিন পর্যন্ত এমন কার্যক্রম চলবে এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, আমাদের উদ্দেশ্য বাজার নিয়ন্ত্রণ করা। যতদিন সম্ভব হয় ততোদিন পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে। নির্দিষ্ট কোনো দিন-তারিখ ঠিক করা হয়নি।
এদিকে স্বল্প মূল্যে টিসিবি পেঁয়াজ বিক্রির স্থানগুলোতে গ্রাহকদের উপচেপড়া ভিড় দেখা গেছে। টিসিবি থেকে পেঁয়াজ কিনতে আসা একাধিক গ্রাহক জানান, দীর্ঘদিন থেকে পেঁয়াজের বাজারে ব্যাপক উত্তাপ চলছে। তাই তারা বিভিন্ন সময় টিসিবির পেঁয়াজ বিক্রির দাবি করে আসছিলেন। অবশেষে সেটি চালু হওয়ায় অনেকটা স্বস্তি পাচ্ছেন তারা।
তবে মাত্র ১ কেজি করে বিক্রি করায় অনেককে ক্ষোভ প্রকাশ করতেও দেখা গেছে। তাদের দাবি, প্রতিজনকে আরও বেশি পেঁয়াজ ক্রয়ের সুযোগের পাশাপাশি বিক্রির স্থান বাড়ানো দরকার। অন্যথায় অনেকেই  পেঁয়াজ কিনতে  না পেরে এখানে এসে শুধু ভোগান্তিতে পড়বেন।