banner

শেষ আপডেট ১৩ নভেম্বর ২০১৯,  ২০:০৭  ||   বৃহষ্পতিবার, ১৪ই নভেম্বর ২০১৯ ইং, ৩০ কার্তিক ১৪২৬

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ চট্টগ্রাম বন্দর ও বিমান বন্দর বন্ধ ঘোষণা, ট্রেন ছাড়ছে শিডিউল অনুযায়ী

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ চট্টগ্রাম বন্দর ও বিমান বন্দর বন্ধ ঘোষণা, ট্রেন ছাড়ছে শিডিউল অনুযায়ী

৯ নভেম্বর ২০১৯ | ২০:৩৭ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ চট্টগ্রাম বন্দর ও বিমান বন্দর বন্ধ ঘোষণা, ট্রেন ছাড়ছে শিডিউল অনুযায়ী

ক্রাইম প্রতিবেদকঃ বাংলাদেশের দিকে ধেয়ে আসা শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ চট্টগ্রাম অতিক্রমের সময় সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে আজ শনিবার বিকাল ৪টা থেকে ১৪ ঘন্টা চট্টগ্রাম শাহ্ আমানত আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে বিমান ওঠা নামা সহ সবধরণের অপারেশনাল কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।
শাহ্ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সিভিল এভিয়েশন বিভাগের ব্যবস্থাপক উইং কমান্ডার সারোয়ার ই আলম জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ চট্টগ্রাম অতিক্রমের সময় সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ এই সিদ্ধান্ত  নিয়েছে।

এদিকে, প্রবল শক্তি নিয়ে ধেয়ে আসা ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’-এর প্রভাবে চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরেও ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেত জারি করা হয়েছে। এছাড়াও আবহাওয়ার এক বিশেষ বুলেটিনে মোংলা ও পায়রা সমদ্র বন্দরকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে।
অন্যদিকে ‘বুলবুল’-এর প্রভাবে চট্টগ্রাম বন্দরে সব ধরনের অপারেশনাল কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আজ শনিবার সকাল সাতটার মধ্যে জেটি থেকে সব জাহাজ সরিয়ে দিয়ে সাগরের গভীর নোঙ্গরে পাঠানো হয়েছে। ইয়ার্ড ও জেটিতে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতিগুলোকে রশি দিয়ে বেঁধে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বিশেষ করে বন্দরে সর্বোচ্চ সতর্কতা হিসেবে এলার্ট ফোর জারি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দরের সচিব ওমর ফারুক।

তিনি বলেন, বন্দরের জেটিতে ষোলটি জাহাজ ছিলো, বহিঃর্নোঙ্গরে আগে থেকেই পঞ্চান্নটি জাহাজ রয়েছে। এখন পাঠানো হয়েছে ষোলটি। জাহাজগুলোকে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে বন্দরে কন্টেইনার উঠানামা, খালাস ও ডেলিভারিসহ সব ধরণের অপারেশনাল কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়েছে। সমুদ্র শান্ত ও স্বাভাবিক হলে বন্দরের কার্যক্রমও স্বাভাবিক হবে।
এছাড়া চট্টগ্রাম রেল স্টেশন থেকে যথাসময়ে ট্রেন ছেড়ে গেছে। সকাল ৭টায় সুবর্ণ এক্সপ্রেস ঢাকার উদ্দেশ্যে, পাহাড়ীকা এক্সপ্রেস ৯টায় সিলেটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। একই সাথে মহানগর গোধূলী তিনটায় ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে গেছে।
মহানগর এক্সপ্রেস দুপুর ১২টা ৩০ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশে, মেঘনা এক্সপ্রেস চাঁদপুর উদ্দেশে বিকেল ৫টা ১৫ মিনিটে, সোনার বাংলা বিকেল ৫টায় ঢাকার উদ্দেশে ও তূর্ণা এক্সপ্রেস রাত ১১টায় ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে বলে জানিয়েছেন পূর্বাঞ্চলের রেল কর্তৃপক্ষ। রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) নাসির উদ্দিন আহমেদ বলেন, ট্রেনের শিডিউল ঠিক রেখেছে রেলওয়ে। সবকটি ট্রেন ঠিক সময়ে ছেড়ে যাচ্ছে। তবে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাবে স্বাভাবিকের চেয়ে কিছুটা কম গতিতে ট্রেন চালানো হচ্ছে।