banner

শেষ আপডেট ১৯ নভেম্বর ২০১৯,  ২২:২৬  ||   মঙ্গলবার, ১৯ই নভেম্বর ২০১৯ ইং, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

প্রশাসনের হাতে তালিকা : ১২ সিন্ডিকেটের কারসাজিতে অস্থির পেঁয়াজের বাজার

প্রশাসনের হাতে তালিকা : ১২ সিন্ডিকেটের কারসাজিতে অস্থির পেঁয়াজের বাজার

৪ নভেম্বর ২০১৯ | ২০:৫৬ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রশাসনের হাতে তালিকা : ১২ সিন্ডিকেটের কারসাজিতে অস্থির পেঁয়াজের বাজার

ক্রাইম প্রতিবেদকঃ  চট্টগ্রাম মহানগরীতে পেঁয়াজের বাজারকে অস্থিতিশীল করার পেছনে ১২ সিন্ডিকেট চক্র জড়িত থাকার প্রমাণ পেয়েছে প্রশাসন। এসব সিন্ডিকেটের তাালিকা এখন প্রশাসনের হাতে রয়েছে বলে জানা গেছে। আজ সোমবার ৪ নভেম্বর দুপুর ১২টা থেকে পৌনে ২টা পর্যন্ত নগরীর খাতুনগঞ্জ ও ২টা থেকে ৩টা পর্যন্ত রেয়াজ উদ্দিন বাজারে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপ সচিব সেলিম হোসেন পরিচালিত অভিযান থেকে এসব চক্রের নাম উঠে এসেছে।

এসময় অতিরিক্ত মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি করায় খাতুনগঞ্জের গ্রামীন বাণিজ্যালয়কে  ৫০ হাজার টাকা ও রেয়াজ উদ্দিন বাজারের রুহুল আমিন সওদাগরকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
অভিযানে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলাম, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের উপ পরিচালক শাহিদা সুলতানা, মুহাম্মদ হাসানুজ্জামান, র‌্যাব ও পুলিশের সদস্যরা অভিযানে অংশ নিয়েছেন।
এ বিষয়ে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলাম বলেন, আমাদের হাতে দুই বাজার অস্থিতিশীল করা ১২ সিন্ডিকেটের নাম ও ঠিকানা এসেছে। তারা কক্সবাজার থেকে পেঁয়াজের মূল্য নির্ধারণ করে দেয়। বিষয়টি আমরা ইতোমধ্যে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনকে জানিয়েছি। তারা সেখানেও অভিযানে নেমেছেন। তিনি আরো বলেন, পেঁয়াজ ব্যবসায়ীদের সাথে বিকেলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপ সচিব মিটিংয়ে বসেছেন। আর আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।
বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের উপ সচিব মো. সেলিম হোসেন জানান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে সারাদেশে বাজার মনিটরিং করা হচ্ছে। মিয়ানমার থেকে ৪২ টাকা দরে আমদানি করা পেঁয়াজ সব খরচ, লাভসহ ৬০ টাকার বেশি পাইকারি মূল্য হতে পারে না। খুচরা পর্যায়ে এটি ৭০ টাকা হওয়া উচিত। কিন্তু আড়তে ৯০ টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে। যা অযৌক্তিক।