banner

শেষ আপডেট ২২ অক্টোবর ২০১৯,  ১৯:১৪  ||   মঙ্গলবার, ২২ই অক্টোবর ২০১৯ ইং, ৭ কার্তিক ১৪২৬

সাগরে গণডাকাতি,৭ ট্রলারের ১৫ লাখ টাকার মালামাল লুট

সাগরে গণডাকাতি,৭ ট্রলারের ১৫ লাখ টাকার মালামাল লুট

৭ অক্টোবর ২০১৯ | ১১:০১ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন, পেকুয়া-কুতুবদিয়া প্রতিনিধি :কক্সবাজারের কুতুবদিয়া দ্বীপের অদূরে বঙ্গোপসাগরের মাছ ট্রলারে গণডাকাতি হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। শনিবার দিবাগত রাত আড়াইটায় এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, অস্ত্রধারী ১২/১৪জন জলদস্যু ট্রলার যোগে সাগরের ফাটারচর নামক স্থানে মাছ ধরারত অবস্থায় ৭/৮টি ট্রলারের উপর হামলা চালায়।
কুতুবদিয়া দ্বীপের আকবর বলী ঘাট এলাকার এফ.বি আল্লাহদান ট্রলারের মালিক ছালামত খান জানান, জলদস্যুদের হামলায় মনজুর মাঝি, হাবিবুর রহমান,হোসেন, আকতার, নুর আহমদ, আলতাজ মাঝিসহ প্রায় ১৫ জেলে আহত হয়েছে। আহতদের কুতুবদিয়া উপকূলে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।
আহত আলতাফ মাঝি জানান, গত বৃহস্পতিবার দিনে বেলায় কুতুবদিয়ার উপকূল অমজাখালী ও আকবর বলী ঘাট এলাকা থেকে প্রায় ৪০/৫০টি মাছ ধরার ট্রলার সাগরে মাছ ধরার উদ্দেশ্যে যায়। মাছ ধরারত অবস্থায় জলদস্যুরা এফ.বি আল্লাহদান, এফ.বি আল্লাহ মালিক, এফ.বিসাগর কন্যা, এফ.বি মনজুর, এফ.বি মানিক, এফ.বি যমুনা, এফ.বি মায়ের দোয়া নামক ট্রলারের মাঝিমাল্লাদের উপর হামলা চালায়। ওই ট্রলারের মাছ, জাল, ডিজেল, মোবাইলসহ প্রায় ১৫ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায় জলদস্যুরা।
রবিবার (০৬ অক্টোবর) সকালে জেলেরা আহত অবস্থায় উপকূলে ফিরে এসে সাগরে গণডাকাতির খবর এলাকায় জানায়।
আহত মনজুর মাঝি জানান, অস্ত্রধারী জলদস্যুরা বাঁশখালী, কুতুবদিয়া উপকূলের ডাকাত। তারা বাঁশখালী উপকূলের মন্নান ও জসিম কোম্পানীর ট্রলার নিয়ে তাদের ট্রলারে হামলা চালিয়ে সাগরে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে মারধর করে মালামাল লুট করে।
কুতুবদিয়া থানার  ওসি দিদারুলের বক্তব্য নেওয়ার জন্য বেশ কয়েকবার ফোন করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।