banner

শেষ আপডেট ১৭ জুলাই ২০১৯,  ১৯:৪৩  ||   বুধবার, ১৭ই জুলাই ২০১৯ ইং, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ

১ জুলাই ২০১৯ | ২০:৫৫ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির গণবিরোধী সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এবং বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে বিএনপি। আজ সোমবার বেলা ১২-৪৫টার দিকে বিক্ষোভ মিছিল নয়াপল্টনস্থ বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে নাইটিঙ্গেল মোড় ঘুরে আবারও বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিকট এসে শেষ হয়। মিছিলে নেতৃত্ব দেন দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

মিছিল শেষে এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে রিজভী বলেন,‘বর্তমান সরকার জনগণের জীবন-জীবিকায় আঘাত হানার উদ্দেশ্যেই ভোক্তা পর্যায়ে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি করেছে। আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের সমর্থনপ্রত্যাশী নয় বলেই এরা জনগণের ভাল-মন্দ বিচার করে না। জনগণকে শোষণই এদের শাসনের একমাত্র লক্ষ্য। জনগণের ওপর নির্মম ও অমানবিক শোষণ চালিয়ে সরকারের লোকদেরকে অবৈধ অর্থ উপার্জনের সুযোগ সৃষ্টি করে দিতেই গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির বোঝা চাপানো হয়েছে জনগণের কাঁধে। আমরা সরকারের এই বেআইনী সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে ভোক্তা পর্যায়ে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার জন্য জোর দাবি জানাচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘সরকার গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত বাতিল না করলে জনগণকে সাথে নিয়ে বিএনপি রাজপথে জোরদার আন্দোলন গড়ে তুলবে। একদিকে মধ্যরাতে ভোট চুরির মাধ্যমে জোর করে রাষ্ট্রক্ষমতা দখল ও ভয়াবহ দুঃশাসনে দেশের জনগণ যেমন ফুঁসছে তেমনি অন্যদিকে দেশের সর্বাধিক জনপ্রিয় নেত্রী সম্পূর্ণ নির্দোষ বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় অন্যায়ভাবে সাজা দিয়ে কারাবন্দী এবং চিকিৎসা না দিয়ে তাঁকে নিঃশেষ করে দেয়ার জন্য সরকারের গভীর ষড়যন্ত্রে জনগণ প্রচণ্ড বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে। যেকোন মুহূর্তে জনতার ঢেউ রাস্তায় উত্তাল হয়ে উঠবে। সরকার প্রধান এখন বিশ্বব্যাপী সেরা স্বৈরাচারী শাসক হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসন যন্ত্রকে কব্জায় নিয়ে তিনি জুলুমের শাসন বলবৎ করেছেন।’

বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে দেশের জনগণ যাতে বর্তমান অবৈধ সরকারের এই জুলুমের শাসনের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে না পারে সেজন্য গণতন্ত্র মুক্তি আন্দোলনের আপোষহীন নেত্রী বেগম জিয়াকে ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনের ১০ মাস আগেই মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে কারান্তরীণ করা হয়েছে। মধ্যরাতের ভোটের সরকার বলেই বর্তমান অবৈধ শাসকগোষ্ঠী জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকারকে মাটিচাপা দিয়ে বিএনপিসহ সকল বিরোধী দলকে নিশ্চিহ্ন করার লক্ষ্যে একদলীয় বাকশালী শাসন প্রতিষ্ঠা করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। কিন্তু জনগণ আওয়ামী শাসকগোষ্ঠীর এই অলীক স্বপ্ন কোনদিনই বাস্তবায়িত হতে দেবে না। আমি আবারও অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তি এবং তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি।’

মিছিলে অংশ গ্রহণ করেন বিএনপি’র প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুল ইসলাম হাবিব, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এ বি এম মোশারফ হোসেন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভুইয়া জুয়েল, মৎস্যজীবী দলের আহবায়ক রফিকুল ইসলাম মাহতাব, সদস্য সচিব আব্দুর রহিম, স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদরেজ জামান, যুবদল ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম মিল্টন, যুবদল দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাওলা শাহীন, স্বেচ্ছাসেবক দল ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি ফখরুল ইসলাম রবিন প্রমূখ।