banner

শেষ আপডেট ১৭ জুলাই ২০১৯,  ১০:৩৪  ||   বুধবার, ১৭ই জুলাই ২০১৯ ইং, ২ শ্রাবণ ১৪২৬

৯০ হাজার মামলায় ১৯ লাখের কাছাকাছি বিএনপি নেতাকর্মীরা গায়েবী মামলার আসামী-ডা. শাহাদত-

৯০ হাজার মামলায় ১৯ লাখের কাছাকাছি বিএনপি নেতাকর্মীরা গায়েবী মামলার আসামী-ডা. শাহাদত-

৩০ জুন ২০১৯ | ২১:৩৬ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ৯০ হাজার মামলায় ১৯ লাখের কাছাকাছি বিএনপি নেতাকর্মীরা গায়েবী মামলার আসামী-ডা. শাহাদত-

ক্রাইম প্রতিবেদকঃ চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. শাহাদত হোসেন বলেছেন, সারা বাংলাদেশে প্রায়ই ৯০ হাজার মামলায় ১৯ লাখের কাছাকাছি বিএনপি নেতাকর্মীরা আসামী।তিনি আজ ৩০ জুন রোববার পাঁচলাইশ থানায় দায়েরকৃত গায়েবী মামলায় হাজিরা শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এ কথা বলেন।

২০১৮ মিডনাইট নির্বাচনের আগে গায়েবী মামলায় যে উদাহরণ সৃষ্টি হয়েছে সেটা নজিরবিহীন। উচ্চ আদালত থেকে আগাম জামিন নেওয়ার পরেও নিম্ন আদালতে জামিন বাতিল করে জেল হাজতে প্রেরণ করছে এখনো। অমানবিক রাষ্ট্রের ধরন হচ্ছে আইনের শাসন থাকবে না, সুশাসন থাকবে না, বাকস্বাধীনতা হরণ করা হবে, রাষ্ট্রীয় যন্ত্রগুলো দলীয় যন্ত্রে রুপান্তরিত হওয়া, মানবিক মর্যাদা-সামাজিক ন্যায় বিচার প্রশ্নবিদ্ধ হওয়াসহ গণতান্ত্রিক সমস্ত প্রতিষ্ঠানগুলোকে ধ্বংস করে দেয়া।
ডা. শাহাদত হোসেন বলেন, গুম-গুপ্ত হত্যা-নির্যাতন-মামলা-হামলা বিচার বহির্ভূত হত্যার মাধ্যমে বিরোধী দলীয় মতকে দমন করা। যার কারণে আজকে বাংলাদেশের মানুষ নৈতিকতা হারিয়ে ফেলেছে। প্রকাশ্যে রিফাত হত্যা, বিশ্বজিৎ দাশ হত্যা, নুসরাত-তনু-মিতু-খাদিজা-সাগর-রুনিসহ অসংখ্য খুনের বিচার না হওয়া বাংলাদেশের এখন নিত্য নৈমত্তিক ঘটনা হয়ে গেছে। কাজেই রাষ্ট্রকে মানবিক করা না গেলে দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা হবে না। গণতান্ত্রিক সমস্ত পথ উম্মুখ হবে না।

মানুষের বিচারের রায় নীরবে-নিভৃতে কাঁদবে। দেশের এই ক্রান্তিকালে সবাইকে দেশ এবং মানুষ বঁচানোর জন্যে ঐক্যবদ্ধ হয়ে গণতন্ত্রের মা আপোষহীন দেশনেত্রী যিনি এখন জাতীয় গন্ডি পেরিয়ে আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্বে পরিণত হয়েছে, বাংলাদেশে তিন তিন বারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলনে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসতে হবে।
ডা. শাহাদত হোসেন আরো বলেন, উচ্চ আদালত থেকে জামিন থাকা সত্ত্বেও পতেঙ্গা থানার দায়েরকৃত মামলায় মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, পতেঙ্গা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শাহাবউদ্দিন, নগর যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. ইকবাল হোসেন, ৪১ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি মো. ইলিয়াছসহ ৫৩ জন বিএনপি নেতা কর্মীদের জেলা হাজতে প্রেরণ করে। তিনি অবিলম্বে মোহাম্মদ মিয়া ভোলা ও মহানগর বিএনপি নেতা কিং আলীসহ নেতাকর্মীদের মুক্তি দাবী জানান।
এ সময় আইনজীবিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সদস্য ও জাতীয়বাদী আইনজীবি ফোরাম চট্টগ্রাম’র সভাপতি এডভোকেট দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি এডভোকেট বদরুল আলম, এডভোকেট মফিজুল হক ভূঁইয়া, এডভোকেট জহুরুল আলম, এডভোকেট কামরুল ইসলাম সাজ্জাদ, এডভোকেট আলা উদ্দিন, এডভোকেট আবদুল মান্নান, এডভোকেট এফ এ সেলিম, এডভোকেট নেজাম উদ্দিন, এডভোকেট মাহমুদুল আলম চৌধুরী মারুফ, এডভোকেট তৌহিদুর রহমান তুহিন প্রমুখ ।