banner

শেষ আপডেট ২০ অক্টোবর ২০১৯,  ২১:১৬  ||   রবিবার, ২০ই অক্টোবর ২০১৯ ইং, ৫ কার্তিক ১৪২৬

তামাক কোম্পানীর অবৈধ বিজ্ঞাপন প্রচার বন্ধে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা

তামাক কোম্পানীর অবৈধ বিজ্ঞাপন প্রচার বন্ধে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা

২৬ জুন ২০১৯ | ২০:১৬ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • তামাক কোম্পানীর অবৈধ বিজ্ঞাপন প্রচার বন্ধে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন অঞ্চল -৫ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মীর নাহিদ আহসান এর নেতৃত্বে এবং বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী এর সহায়তায় আজ ২৬ জুন বুধবার, শের-ই-বাংলা নগর সড়ক, আগারগাঁ ও ফার্মগেট এলাকায় তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়।

তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ আইন অনুসারে তামাকজাত দ্রব্যের সকল ধরনের বিজ্ঞাপন প্রচার প্রচারনা নিষিদ্ধ থাকা সত্বেও যুব সমাজকে ধূমপানের আকৃষ্ট করার জন্য তামাক কোম্পানীগুলো অবৈধভাবে বিজ্ঞাপন প্রচার করে যাচ্ছে। এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শের-ই-বাংলা নগর সড়ক, আগারগাঁও ও ফার্মগেট এলাকার ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো এর ব্যান্ডসন এ্যান্ড হেডজেস নামক ব্যান্ডের তামাকজাত দ্রব্যের খালি মোড়ক দিয়ে তৈরী প্রায় ৪০টি বক্সের বিজ্ঞাপন ধংস করেন এবং এদের মধ্যে অনেকে ভ্রাম্যমান আদালত বিষয়টি টের পেয়ে সিগারেট বিক্রির বক্সগুলোকে অনত্র সরিয়ে ফেলে নিজেরা পালিয়ে যায়।

এদের মধ্যে যারা উপস্থিত ছিলেন তাদেরকে উদ্দেশ্য করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হুসিয়ার করে বলেন, পরবর্তিতে যদি তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন প্রচার করে তাহলে জেল, জরিমানা ও উভয় দন্ডে শাস্তি প্রদান করা হবে ।

অপর দিকে ফার্মগেট এলাকার কস্তুরী ছায়ানীড় রেস্টুরেন্ট এন্ড চাইনিজকে বাসি খাদ্য, অপরিষ্কার এবং তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন অনুসারে ধূমপানমুক্ত সাইনেজ না থাকায় উভয় মিলিয়ে পঞ্চাশ হাজার টাকা ও কাসুন্দী রেস্তোরাঁ লিঃ কে বাসি খাদ্য, অপরিষ্কার এবং তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন অনুসারে ধূমপানমুক্ত সাইনেজ না থাকায় উভয় মিলিয়ে এক লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়। এবং উভয় মালিক কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয় যে তারা যেন যথা সময়ের মধ্যে আইন অনুসারে পর্যাপ্ত পরিমানে ধূমপানমুক্ত সাইনেজ স্থাপনের ব্যবস্থা গ্রহন করেন।

উক্ত দুইটি এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় সহায়তায় ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অঞ্চল-৫ এর স্বাস্থ্য পরিদর্শক আব্দুল খালেক মজুমদার। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের তামাক নিয়ন্ত্রণ প্রকল্প কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। ঢাকা উত্তর ও দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনকে উদ্বদ্ধুকরণের মাধ্যমে সিটি কর্পোরেশন আওতাধীন এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনায় সহায়তা প্রদান করছে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন।