banner

শেষ আপডেট ২০ অক্টোবর ২০১৯,  ২১:১৬  ||   রবিবার, ২০ই অক্টোবর ২০১৯ ইং, ৫ কার্তিক ১৪২৬

গণ মানুষের ভাব-ভাবনার ধারক আওয়ামীলীগ আঘাতে আঘাতে হয়েছে শক্তিশালী

গণ মানুষের ভাব-ভাবনার ধারক আওয়ামীলীগ আঘাতে আঘাতে হয়েছে শক্তিশালী

২৫ জুন ২০১৯ | ২১:৩৭ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • গণ মানুষের ভাব-ভাবনার ধারক আওয়ামীলীগ আঘাতে আঘাতে হয়েছে শক্তিশালী

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ ১৯৪৯ সালের ২৪ জুন ঢাকার স্বামীবাগে বিখ্যাত রোজ গার্ডেন জন্ম হয়েছিল আওয়ামীলীগ নামের রাজনৈতিক দলটির। এই দলের জন্ম লাভের মধ্য দিয়েই রোপিত হয়েছিল বাঙালির হাজারও বছরের লালিত স্বপ্ন স্বাধীনতা সংগ্রামের বীজ। অর্জিত হয়েছে মাতৃভাষার অধিকার ও স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ।

মহান মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী সংগ্রাম, অর্জন ও গৌরবের ইতিহাস সৃষ্টিকারী সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপন উপলক্ষে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও সাহিত্য চর্চা পরিষদ এবং চট্টগ্রাম বঙ্গবন্ধু হোমিওপ্যাথিক ডক্টরস এসোসিয়েশন (বিএইচডিএ) কেন্দ্রীয় কমিটির যৌথ উদ্যোগে বিএইচডিএ চেয়ারম্যান উপাধ্যক্ষ ডাঃ চন্দন দত্তের সভাপতিত্বে মহাসচিব ডা. এ. কে এম ফজলুল হক সিদ্দিকী এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও সাহিত্য চর্চা পরিষদ সাধারণ সম্পাদক ডাঃ মোঃ শওকত ইমরান এর যৌথ সঞ্চালনায়, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব এস. রহমান মিলনায়তনে গত ২২ জুন শনিবার ৩টায় বর্নাঢ্য র‌্যালী, কেক কাটা, প্রবীণ ত্যাগী আওয়ামী নেতার সংবর্ধনা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র বলেন, ভাষা, স্বাধিকার, গণতন্ত্র ও স্বাধীনতা অর্জনে মহোত্তম গৌরবে অভিষিক্ত আওয়ামীলীগ সাত দশকের অভিযাত্রায় শান্তি, সমৃদ্ধি ও দিন বদলের লক্ষ্যে অবিচল বাঙালি জাতির মুক্তির দিশারী। গণতন্ত্র ও অসাম্প্রদায়িক ভাবাদর্শের মূলধারায় আওয়ামীলীগ আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্যদিয়ে আমাদের সমাজ রাজনীতিকে নিরবচ্ছিন্নভাবে এগিয়ে নিচ্ছে।

সভার উদ্বোধক মহানগর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, আওয়ামীলীগ পাকিস্তান অবৈজ্ঞানিক এবং ভৌগলিক ও নৃতাত্ত্বিকভাবে এক উদ্ভট রাষ্ট্রের পূর্ব বাংলার বাঙালি জনগোষ্ঠী ও অন্যান্য ক্ষুদ্র জাতিসত্তাকে অবজ্ঞায়, অবহেলায় ও ঔপনিবেশিক কায়দায় শোষণ, পীড়ন-দমন ও দাবিয়ে রাখার বিরুদ্ধে লাগাতার প্রতিবাদ প্রতিরোধ এবং গণ সংগ্রামের মধ্যদিয়ে গড়ে ওঠা বিপুল জনপ্রিয় একটি রাজনৈতিক দল। এ দলের নেতা কর্মীদের ত্যাগ-তিতিক্ষা ও অঙ্গীকারদীপ্ত সংগ্রামী ভূমিকা ইতিহাস বিদিত।

প্রধান বক্তা এম. জহিরুল আলম দোভাষ ডলফিন বলেন, বঙ্গবন্ধুর রেখে যাওয়া আদর্শেই জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে বাংলাদেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করেছে এবং উন্নত বাংলাদেশ গড়তে দৃঢ়ভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। আমরা তাঁর কর্মী হিসেবে পাশে থেকে কাজ করে যেতে চাই।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন লায়ন মাহফুজুল হক চৌধুরী, দৈনিক চট্টগ্রাম মঞ্চ সম্পাদক সৈয়দ উমর ফারুক, আন্দরকিল্লা ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন, মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. সালাহউদ্দিন, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও সাহিত্য চর্চা পরিষদের সভাপতি এম. নুরুল হুদা চৌধুরী, অধ্যক্ষ রতন কুমার নাথ, সংগঠক আব্দুর রহিম, ডা. রতন চক্রবর্তী, স্বপন সেন, প্রভাষক রুপক রুদ্র, মো. মামুন, বিল্লাল হোসেন, কোরবান আলী বাবু, জি. এম. ফয়সাল পারভেজ, কে এইচ এম তারেক, মো. রাশেদ, মো. রফিকুল ইসলাম রুবেল, মো. ফারুক হাসান, এস. এম. হাসান, নারী নেত্রী রুমকি সেন, ঝর্ণ নন্দী, সাংবাদিক মো. সাগর প্রমুখ।