banner

শেষ আপডেট ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯,  ২৩:১৫  ||   রবিবার, ২২ই সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং, ৭ আশ্বিন ১৪২৬

সিডিএকে ভূমি ব্যবহার ছাড়পত্র ও নকশা অনুমোদন প্রক্রিয়া সহজকরণের তাগিদ বিডার

সিডিএকে ভূমি ব্যবহার ছাড়পত্র ও নকশা অনুমোদন প্রক্রিয়া সহজকরণের তাগিদ বিডার

২০ মে ২০১৯ | ০০:১০ |    নিজস্ব প্রতিবেদক

ক্রাইম প্রতিবেদকঃ ‘ইজি অব ডুয়িং বিজনেস’ সূচকে উন্নতি করার লক্ষ্যে ভবনের নকশা অনুমোদন ও ভূমি ব্যবহার ছাড়পত্র প্রক্রিয়া সহজ করার তাগিদ দেওয়া হয়েছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষকে (সিডিএ)।আজ ১৯ মে রোববার দুপুরে সিডিএ সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) মহাপরিচালক তৌহিদুর রহমান খান এ নির্দেশনা দেন।

‘প্রতিনিধিদলকে ইতোমধ্যে অনুমোদনের ‘অটোমেটেডে সিস্টেম’ চালুর বিষয়টি জানানো হয়েছে। এ ছাড়া অনুমোদন প্রক্রিয়া সংক্রান্ত কিছু তথ্য চেয়েছে বিশ্বব্যাংক। এজন্য একটি ফরমেট দিয়েছে তারা। দ্রুত সেসব তথ্য সরবরাহ করা হবে।

সিডিএর উপ প্রধান নগর পরিকল্পনাবিদ শাহীনুল ইসলাম খান বলেন, ‘বিডা ও বিশ্ব ব্যাংকের প্রতিনিধিদের সঙ্গে ইজি অব ডুয়িং বিজনেস নিয়ে আলোচনা হয়েছে। অলোচনায় তারা ভবন নির্মাণ অনুমোদনের বিষয়ে জানতে চেয়েছে। পাশাপাশি দ্রুত অনুমোদন প্রক্রিয়া শেষ করার তাগিদ দিয়েছে।’ ইতোমধ্যে উল্লেখ্য অটোমেটেডে সিস্টেমের আলোকে অথরাইজড -১ দপ্তরে বেশ কয়েকটি ফাইল জমা হয়েছিল। সে গুলোর অনুমোদন দ্রুতভাবে নিস্পন্ন হয় বলে অথরাইজড অফিসার -১  মো. মঞ্জুর হাসান জানান।

উল্লেখ্য, বিশ্বব্যাংকের ‘ইজি অব ডুয়িং বিজনেস’বা সহজে ব্যবসা করার সূচকে উন্নতি করার লক্ষ্যে সরকার নানা কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। বিডা ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এসব কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নে কাজ করছে। এ সংক্রান্ত একটি কর্মপরিকল্পনা সিডিএকে দেওয়া হয়েছে।

কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী সিডিএ’র সকল জোনে ভবন নির্মাণের অনুমোদনের জন্য ‘অটোমেটেডে সিস্টেম’চালু করা, যা ইতোমধ্যে বাস্তবায়ন করেছে সংস্থাটি। এ ছাড়া অনুমোদন প্রদানের জন্য একটি ‘ওয়ানস্টপ’শপ তৈরি ও অনুমোদন প্রদানের লক্ষ্যে সিডিএ যে সমস্ত আবেদনপত্র গ্রহণ করে, প্রতি ৬ মাস অন্তর তার একটি তালিকা বিডা কর্তৃপক্ষকে প্রেরণ করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন সিডিএ চেয়ারম্যান এম. জহিরুল আলম দোভাষ, অথরাইজড কর্মকর্তা-১ নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মঞ্জুর হাসান, অথরাইজড কর্মকর্তা-২ নির্বাহী প্রকৌশলী মোহাম্মদ শামীমও নগর পরিকল্পনাবিদ আবু ঈসা আনছারী প্রমুখ।

উল্লেখ্য, বিশ্বব্যাংকের ‘ইজি অব ডুয়িং বিজনেস-২০১৮ সূচকে বিশ্বের ১৯০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ছিল ১৭৭ তম।

তবে সূচকে উন্নতি করার লক্ষ্যে বিভিন্ন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে সরকার। ইতোমধ্যে ন্যাশনাল কমিটি ফর মনিটরিং ইমপ্লিমেন্টেশন অব ডুয়িং বিজনেস রিফমর্সের (এনসিএমআইডি) নামে কমিটি গঠন করা হয়েছে