banner

শেষ আপডেট ২৬ অগাস্ট ২০১৯,  ১০:৪৮  ||   সোমবার, ২৬ই আগষ্ট ২০১৯ ইং, ১১ ভাদ্র ১৪২৬

গণমাধ্যম রাষ্ট্রের চতুর্থ অঙ্গ—তথ্যমন্ত্রী

গণমাধ্যম রাষ্ট্রের চতুর্থ অঙ্গ—তথ্যমন্ত্রী

১৮ মে ২০১৯ | ২০:২৪ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • গণমাধ্যম রাষ্ট্রের চতুর্থ অঙ্গ—তথ্যমন্ত্রী

ক্রাইম প্রতিবেদকঃ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং সরকারের তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, গণমাধ্যম রাষ্ট্রের চতুর্থ অঙ্গ। গণমাধ্যম সমাজের মনন তৈরি করার ক্ষেত্রে, নতুন প্রজন্মকে দেশ গঠনে ব্রতী হওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে। সমাজের সাধারণ মানুষের কাছে সঠিক তথ্য উপস্থাপনেও কাজ করছে গণমাধ্যম। আজ ১৮ মে শনিবার চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল আয়োজিত চট্টগ্রামের প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দের অংশগ্রহণে সাংবাদিকতার নীতিমালা, বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন ও তথ্য অধিকার আইন অবহিতকরণ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কখা বলেন।
কর্মশালার উদ্বোধক বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল এর চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন আহম্মদ, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সভাপতি মো. আলী আব্বাস, সাধারণ সম্পাদক, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি হাসান ফেরদৌস, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি রিয়াজ হায়দার চৌধুরী, বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের সদস্য নঈম নিজাম, মঞ্জুরুল হাসান বুলবুল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনসহ চট্টগ্রামের স্থানীয় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার পর প্রথম যে দৈনিক পত্রিকাটি প্রকাশিত হয়েছে তা চট্টগ্রাম থেকেই প্রকাশিত হয়েছে। চট্টগ্রামের সাংবাদিকরা স্বাধীনতা যুদ্ধেও ভূমিকা রেখেছেন।

তিনি আরো বলেন, উন্নত রাষ্ট্র গঠন করতে হলে দেশাত্ববোধ থাকতে হবে। দেশাত্ববোধ সৃষ্টি না হলে দেশের আত্বিক উন্নত হবে না। বস্তুগত ও ভৌতিক উন্নয়ন করে উন্নত অবকাঠামো তৈরি করা যায় কিন্তু উন্নত জাতি গঠন করা ভিন্ন বিষয়। বস্তুগত উন্নয়ন দিয়ে উন্নত জাতি গঠন করা যায় না। মানুষের মেধা দেশাত্ববোধের সমন্বয় ঘটিয়ে উন্নত রাষ্ট্র গঠন করতে হবে। সেজন্য গণমাধ্যমের ভূমিকা রয়েছে।

বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোহাম্মদ মমতাজ উদ্দিন বলেন, সাংবাদিকদের অধিকার, সম্মান সাংবাদিকদেরই রক্ষা করতে হবে। সাংবাদিকদের নিজ আত্মমর্যাদা ফিরিয়ে আনতে হলে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হবে। আমাদের নিজেদের অবস্থানকে ধরে রাখতে হবে। মূল সংবাদ পরিবেশন করে নিজেদের পেশাদারিত্ব বাড়াতে হবে সাথে সাথে পাঠকের কথা বলতে হবে। সংবাদ পরিবেশনের ক্ষেত্রে গণমানুষের কথা বলতে হবে।