banner

শেষ আপডেট ২০ এপ্রিল ২০১৯,  ১৮:৪৮  ||   বুধবার, ২৪ই এপ্রিল ২০১৯ ইং, ১১ বৈশাখ ১৪২৬

৮ কোটি টাকা ব্যয়ে কৃষ্ণকুমারী বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মিত হচ্ছে–মেয়র

৮ কোটি টাকা ব্যয়ে কৃষ্ণকুমারী বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মিত হচ্ছে–মেয়র

১৩ এপ্রিল ২০১৯ | ২৩:৫৪ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ৮ কোটি টাকা ব্যয়ে কৃষ্ণকুমারী বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মিত হচ্ছে–মেয়র

ক্রাইম প্রতিবেদকঃ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন পরিচালিত কৃষ্ণকুমারী সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বার্ষিক মিলাদ,মেধা,ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান-২০১৯ বিদ্যালয় মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। আজ শনিবার এই অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ.জ.ম.নাছির উদ্দীন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

স্থানীয় কাউন্সিলর ও বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সদস্য মোহাম্মদ সলিম উল্লাহ বাচ্চু এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় চসিক প্রধান শিক্ষা কর্মকর্তা সুমন বড়ৃয়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সদস্য বিলকিছ বেগম, অপর্ণাচরণ সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ জারকা বেগম, কৃষ্ণকুমারী সিটি কর্পোরেশন বালিকা বিদ্যালয়ের প্রাতঃ শাখার সহকারী প্রধান শিক্ষক রোকসানা বেগম মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আহম্মদ হোসাইন শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র বলেন অতি শিঘ্রই কৃষ্ণকুমারী সিটি কর্পোরেশন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের কাজ শুরু হবে। ৬ তলা বিশিষ্ট এই ভবন নির্মাণে ব্যয় হবে প্রায় ৮ কোটি টাকা। শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের অর্থায়নে এই নান্দনিক ভবন নির্মিত হবে। এতে থাকছে ১৮টি ক্লাস রুম, হল রুম, লাইব্রেরী, লিফট স্পেস, সিঁড়ি, প্রতি ফ্লোরে টয়লেট ব্লক, ল্যাবরোটারী, আইটি কক্ষ ও মাল্টিমিডিয়া শ্রেণি কক্ষ । এই ভবন আগামী ৩ বছরের মধ্যে নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা আধুনিক ও সুন্দর পরিবেশে পড়ালেখা করতে পারবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এই প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, আগামী রমজান বন্ধের সময় স্কুলের শিফটিং কাজ শুরু হবে। তাই রমজান বন্ধের পর মিনিসিপ্যাল মডেল হাই স্কুলে এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষির্থীরা অধ্যয়ন করবে। এই সাময়িক অসুবিধার জন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন।

মেয়র বলেন, আলোকিত জ্ঞানগর্ব সমাজ বিনির্মানে সুষ্ঠ পরিবেশ অপরিহার্য। এ ধরণের পরিবেশ সৃষ্টির অভাবে চসিক পরিচালিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিদ্যামান সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। পরিকল্পিতভাবে এসব সমস্যা সমাধানের জন্য চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। পরে মেয়র বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন।