banner

শেষ আপডেট ১৮ নভেম্বর ২০১৯,  ২১:৩৭  ||   সোমবার, ১৮ই নভেম্বর ২০১৯ ইং, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

চলতি অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি ৮.১৩%, মাথাপিছু আয় ১৯০৯ ডলার

চলতি অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি ৮.১৩%, মাথাপিছু আয় ১৯০৯ ডলার

১৯ মার্চ ২০১৯ | ২১:১০ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • চলতি অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি ৮.১৩%, মাথাপিছু আয় ১৯০৯ ডলার

চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরে দেশের মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি দাঁড়াবে ৮ দশমিক ১৩ শতাংশে এবং মাথাপিছু আয় হবে ১৯০৯ মার্কিন ডলার।আজ মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলানগর এনইসি সম্মেলনকক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) বৈঠকশেষে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এসব তথ্য জানান।
এ সময় পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য (সিনিয়র সচিব) ড. শামসুল আলম ও পরিকল্পনা সচিব নুরুল আমিন উপস্থিত ছিলেন।
অর্থমন্ত্রী বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুারোর (বিবিএস) তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরে বলেন,গত অর্থবছরে জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার ছিল ৭ দশমিক ৮৬ শতাংশ।মূলত শিল্প খাতের হাত ধরে প্রবৃদ্ধির আকার বেড়েছে। চলতি অর্থবছরে জিডিপির আকার দাঁড়াবে ২৫ লাখ ৩৬ হাজার ১৭৭ কোটি টাকা। গত অর্থবছর এর পরিমাণ ছিল ২২ লাখ ৫০ হাজার ৪৭৯ কোটি টাকা।
বিবিএস এর তথ্যমতে, কৃষি খাতে চলতি অর্থবছর প্রবৃদ্ধি হবে ৩ দশমিক ৫১ শতাংশ। শিল্প খাতে প্রবৃদ্ধি দাঁড়াবে ১৩ দশমিক শুন্য ২ শতাংশ এবং সেবা খাতে প্রবৃদ্ধি হবে ৬ দশমিক ৫০ শতাংশ।
এক প্রশ্নের উত্তরে অর্থমন্ত্রী বলেন, সামষ্টিক অর্থনীতি বিশেষ করে রফতানি, বিনিয়োগ, রেমিটেন্স প্রবাহ এবং ম্যানুফ্যাকচারিং খাতে অবস্থা ভাল থাকায় উচ্চ প্রবৃদ্ধি অর্জন সহজ হয়েছে। আগামী চার বছরে প্রবৃদ্ধি দুই অংকের ঘরে পৌঁছাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।
বেসরকারিখাতকে প্রবৃদ্ধির ‘ইঞ্জিন’ উল্লেখ করে তিনি বলেন,বিনিয়োগ সম্প্রসারণে সরকার সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে। যাতে বিনিয়োগকারীরা অধিকতর বিনিয়োগে উৎসাহী হন।
তিনি জানান,চলতি অর্থবছরে দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে ১৯০৯ ডলার।গত অর্থবছরে মাথাপিছু আয় ছিল১৭৫১ ডলার।