banner

শেষ আপডেট ২০ মার্চ ২০১৯,  ২২:২৫  ||   বৃহষ্পতিবার, ২১ই মার্চ ২০১৯ ইং, ৭ চৈত্র ১৪২৫

একের পর এক ওসি রদবদল : অপরাধের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে সিএমপি

একের পর এক ওসি রদবদল : অপরাধের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে সিএমপি

১৩ মার্চ ২০১৯ | ২০:৫৪ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • একের পর এক ওসি রদবদল : অপরাধের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে সিএমপি

ক্রাইম প্রতিবেদকঃ অপরাধের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছে চট্টগ্রাম মেট্টেপলিটন পুলিশ (সিএমপি)। ১৬ টি থানা নিয়ে গঠিত চট্টগ্রাম মহানগর এলাকায় সকল প্রকার অপরাধ দমনে সিএমপি আরো সক্রিয় হচ্ছে। একের পর সোনার চালান আটক, হত্যা, ধর্ষণ ও চুরিসহ বিভিন্ন প্রকারের অপরাধ দমনে সিএমপি কমিশনার মো. মাহবুবুর রহমান এমন সাহসী পদক্ষেপ গ্রহন করেছেন।

এদিকে অপরাধ এবং আইনশৃংখলা দমনে আরো উন্নতির লক্ষ্যে কযেকজন ওসিকে বদলী করা হয়েছে। এতে করে অন্যান্য থানার ওসি ও পদস্থ কর্মকর্তাদের মধ্যেও বদলি আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

সেইসঙ্গে এ তালিকায় আরও অনেকেই অপেক্ষমান বলেও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। বিশেষ করে ক্ষমতাসীন দলের বাহিরে বিএনপিপন্থি অফিসার হিসেবে তকমা লাগানোদের জন্য শাস্তির খড়গ হিসেবে তাদের বদলি করা হতে পারে।

এক কর্মকর্তা বলেন, টেনশন নিয়ে প্রতিদিন অফিস শেষ করি। কখন বদলির চিঠিটা হাতে ধরিয়ে দেয়া হবে জানি না। বদলি মানেই ব্যাগ-লাগেজ গোছানো। সন্তানদের স্কুল-কলেজ নিয়েও চলে টানাপোড়েন। স্ত্রী চাকরিজীবী হলে সমস্যা আরো প্রকট। সবমিলিয়ে মানসিক যন্ত্রণার মধ্যে থাকতে হচ্ছে।
জানা গেছে, নগরের ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মহিউদ্দিন সেলিমকে বদলি করা হয়েছে। গত রোববার বিকেলে চট্টগ্রাম মেট্টোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমানের দেওয়া এক অফিস আদেশে তাকে বদলি করা হয়েছে। তাকে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে।

অন্যদিকে আরো দুই থানার ওসির রদবদল হয়েছে। গত মঙ্গলবার বিকেলে সিএমপি কমিশনারের দেওয়া এক অফিস আদেশে এদের বদলীর এ আদেশ দেওয়া হয়। ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পদে পাহাড়তলী থানার ওসি সদীপ কুমার দাশকে বদলী করা হয়েছে এবং পাহাড়তলী থানার ওসি পদে বদলী করা হয়েছে নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক মো. মাইনুর রহমানকে।
এদিকে অপরাধীর বিরুদ্ধে পুলিশের অবস্থান কঠোর এমনটি উল্লেখ করে সিএমপি কমিশনার মো. মাহবুবর রহমান বলেন, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড হলে, সেটা যে-ই করুক, সবার জন্য একই ট্রিটমেন্ট। কারণ দলীয় পরিচয় আমাদের কাছে মুখ্য নয়। আমরা নিরপেক্ষভাবে কাজ করব। সরকারি দল-বিরোধী দল না দেখে সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থান নিরপেক্ষ থাকবে।

সিএমপি কমিশনার বলেন, গত ১০ বছরগুলো যেভাবে চলেছে, সামনেও সেভাবে চলবে । এটি পুলিশ, সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ীদের জন্যও যেমন প্রযোজ্য, তেমনি যারা রাজনৈতিক পৃষ্ঠপোষকতায় সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করেন, তাদের জন্যও প্রযোজ্য।

তিনি বলেন, সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ী, ডাকাত, ছিনতাইকারীর জন্য সিসিটিভি সতর্ক বার্তা। যেসব ছিনতাইকারী মোটরসাইকেল থেকে মোবাইল টেনে নেয়, স্বর্ণের চেইন নিয়ে যায়, তাদের জন্য সিসিটিভি ক্যামেরা সতর্ক বার্তা। আমাদের উদ্যোগ থাকবে, সারা শহর সিসিটিভির মধ্যে নিয়ে আসব।