banner

শেষ আপডেট ৯ ডিসেম্বর ২০১৮,  ২৩:২০  ||   সোমবার, ১০ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

‘এক্সিম ব্যাংক-অন্যদিন হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য পুরস্কার ২০১৮’ ঘোষণা

‘এক্সিম ব্যাংক-অন্যদিন হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য পুরস্কার ২০১৮’ ঘোষণা

৩ নভেম্বর ২০১৮ | ১৬:৩৭ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ‘এক্সিম ব্যাংক-অন্যদিন হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য পুরস্কার ২০১৮’ ঘোষণা

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ বাংলা কথাসাহিত্যের ইতিহাস খুব বেশি পুরোনো নয়। ১২৮০ বঙ্গাব্দের (১৮৭৩ খ্রিষ্টাব্দ) জ্যৈষ্ঠ সংখ্যায় ‘বঙ্গদর্শন’ পত্রিকায় বঙ্কিম সহোদর পূর্ণচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ‘মধুমতী’ গল্প দিয়েই বাংলা গল্পের যাত্রা শুরু। অন্যদিকে বাংলা সাহিত্যের প্রথম উপন্যাস প্যারীচাঁদ মিত্রের ‘আলালের ঘরের দুলাল’ (১৮৫৭)। তবে উপন্যাসে নবযুগের সূত্রপাত ঘটে বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের ‘দুর্গেশনন্দিনী’ (১৮৬৫) প্রকাশের মধ্য দিয়ে।… কল্লোল যুগে বাংলা কথাসাহিত্য নতুন মাত্রা পায়। এই মাধ্যমটির মানচিত্র প্রসারিত হয়। নিচুতলার মানুষদের জীবন উঠে আসে কথাসাহিত্যে।… বাংলাদেশের কথাসাহিত্যের প্রসঙ্গে বলা যায়, পঞ্চাশের দশকে কথাসাহিত্য হয়ে ওঠে মৃত্তিকাস্পর্শী ও জাতিসত্তার শিকড়সন্ধানী। ষাট দশকে এদেশের কথাসাহিত্যে সূচিত হয় নতুন স্রোত। আর্থ-সামাজিক-রাজনৈতিক কল্লোল আর সংঘাতের পটে রচিত হয় গল্প-উপন্যাস। স্বাধীনতা-পরবর্তী সময়ে কথাসাহিত্যে লক্ষ করা যায় নতুন নতুন নিরীক্ষা আর বাঁক।
এই পটভূমিতে ২০১৫ সালে প্রবর্তিত হয় ‘এক্সিম ব্যাংক-অন্যদিন হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য পুরস্কার’। প্রত্যাশা করা হচ্ছে, এই পুরস্কার এদেশের প্রবীণ এবং নবীন এই দুই শ্রেণির কথাসাহিত্যিকদেরই অনুপ্রাণিত করবে। এই বছর এ পুরস্কার পেয়েছেন দুজন লেখক সাহিত্যে সামগ্রিক অবদানের জন্য প্রবীণ কথাশিল্পী রিজিয়া রহমান এবং নবীন সাহিত্যশ্রেণিতে (অনূর্ধ্ব চল্লিশ বছর বয়স্ক লেখক) ফাতিমা রুমি। তাঁরা পুরস্কার হিসেবে পাবেন যথাক্রমে পাঁচ লাখ এবং এক লাখ টাকা। এছাড়া প্রদান করা হবে ক্রেস্ট, উত্তরীয় এবং সার্টিফিকেট।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে এই দুটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার পেয়েছিলেন যথাক্রমে শওকত আলী এবং সাদিয়া মাহ্জাবীন ইমাম। ২০১৬ সালে পুরস্কৃত হয়েছিলেন হাসান আজিজুল হক এবং স্বকৃত নোমান। অন্যদিকে ২০১৭ সালে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়েছিল জ্যোতিপ্রকাশ দত্ত এবং মোজাফ্ফর হোসেনের হাতে।
২০১৮ সালের পুরস্কার বিজয়ী দুজনের নাম সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা করা হয় আজ ৩ নভেম্বর, শনিবার, বিকেলে, শাহবাগস্থ জাতীয় জাদুঘরের বোর্ড অব ট্রাস্টির সভাকক্ষে।

এই সময় উপস্থিত ছিলেন অন্যদিন সম্পাদক মাজহারুল ইসলাম এবং এক্সিম ব্যাংকের অ্যাসিসটেন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট ও হেড অব করপোরেট অ্যাফেয়ার্স এন্ড ব্র্যান্ডিং ডিভিশন, মি. সঞ্জীব চ্যাটার্জি।

উল্লেখ্য, আগামী ১২ নভেম্বর, সোমবার, বিকেলে বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে এ পুরস্কার প্রদান করা হবে।

রিজিয়া রহমান
এদেশের মাটি ও মানুষের প্রতি দায়বদ্ধ এক কথাসাহিত্যিক রিজিয়া রহমান। তাঁর গল্প-উপন্যাসে এদেশের মানুষের সংগ্রাম মূর্ত হয়ে ওঠে। গণমানুষের যাপিত জীবন, চারপাশের অসংগতি ও বৈষম্য ধরা পড়ে তাঁর সাহিত্য দর্পণে। সময়ের উত্তাপ, ইতিহাসের নানা অধ্যায় ও মানুষের দ্রোহও অপূর্ব ব্যঞ্জনায় উদ্ভাসিত তাঁর লেখায়।