banner

শেষ আপডেট ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮,  ২৩:১১  ||   মঙ্গলবার, ২৫ই সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

গান আমার নেশা গান আমার পেশা–হাসান জাহাঙ্গীর

গান আমার নেশা গান আমার পেশা–হাসান জাহাঙ্গীর

১৪ জুলাই ২০১৮ | ১৯:১৭ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • গান আমার নেশা গান আমার পেশা–হাসান জাহাঙ্গীর

বশির আলমামুন : দেশ সেরা খ্যাতিমান আবৃতি শিল্পী। চট্টগ্রাম বেতার, টেলিভিশন ও মঞ্চের নিয়মিত সংগীত শিল্পী। প্রতিনিধি নাট্য সম্প্রদায়ের সাধারণ সম্পাদক। যিনি নাটক নির্দেশনা, সংগীতে সুর দেয়া, একাধিক জনপ্রিয় প্রতিষ্টানে শুদ্ধ উচ্চারণে ক্লাস নেয়া সহ আরো নানা গুনে গুনান্নিত। শুধূ তাই নয় একজন নৈতিক মূল্যবোধ সম্পন্ন সর্বস্তরের মানুষের কাছে গ্রহন যোগ্য ভ্রদ্র বিনয়ী আলোকিত মানুষ হলেন মো. জাহাঙ্গীর আলম। যিনি চট্টগ্রামের সাংস্কৃতিক অঙ্গনে হাসান জাহাঙ্গীর নামে পরিচিত। আগামী ২১ জুলাই জেলা শিল্পকলা একাডেমির নিবাচনে চট্টগ্রামের জনপ্রিয় ও সুপরিচিত এ ব্যক্তিত্ব যুগ্ন সম্পাদক পদে দাড়িয়েছে। চট্টগ্রামের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বিকাশে তাই এ যোগ্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বকে নির্বাচিত করা দরকার বলে মনে করেন চট্টগ্রামের শিল্পি সমাজ।
এক প্রশ্নের জবাবে হাসান জাহাঙ্গীর বলেন গান আমার নেশা। গান আমার ভালোবাসা। ২০০৪ সালে আমার প্রথম মিউজিক ভিডিও “রূপের কারিগর” প্রকাশিত হয় খ্যাতনামা প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সঙ্গীতা’র ব্যানারে। ২০১০ সালে দ্বিতীয় মিউজিক ভিডিউ “স্বপ্ন স্বপ্ন” এবং ২০১৫ সালে তৃতীয় মিউজিক অ্যালবাম “মনপাখি”। দেড় যুগেরও বেশী সময় ধরে নিয়মিত গান পরিবেশন করে আসছি টেলিভিশন, বেতার ও মঞ্চে। ২০১৭ সালে বিশাল কলেবরে আয়োজিত হয় একক সঙ্গীতানুষ্ঠান “যদি নীল দাও”। সবার ভালোবাসায় গান নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই দূরে, বহুদূরে। তিনি বলেন সেই স্কুলজীবন থেকে মঞ্চ নাটকে অভিনয় শুরু। পরবর্তীতে নাট্যদল প্রতিনিধি নাট্য সম্প্রদায় এর সাথে যুক্ত হই। নাট্য নির্দেশক সুজিত দাশ বাপ্পীর নির্দেশনায় বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এর কবিতা অবলম্বনে নাট্যকার সুদীপ দেওয়ানজীর নাটক ” দুই বিঘা জমি ” তে উপেন চরিত্রে, নাট্যনির্দেশক শাহীনুর সরোয়ার এর নির্দেশনায় নাট্যকার প্রদীপ দেওয়ানজীর ” রাকস ” নাটকে সজীব চরিত্রে এবং কবি সুনীল গঙ্গোপাধ্যায় এর “রাজা-রানী” নাটকে রাজার চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে তার মঞ্চাভিনয় হয়েছে সমৃদ্ধ ও বর্ণিল। শুধু “রাজা-রানী” নাটকে নির্দেশনা নয়, নাট্যকার বাদল সরকার এর “সলিউশন এক্স” নাটকে অভিনয়ের পাশাপাশি নির্দেশনা প্রদানের সুযোগটাও ছিল তার কাছে বিশেষ প্রাপ্তি। প্রতিভাবান এই শিল্পী ইতিমধ্যে তার বহুমূখী প্রতিবার মাধ্যমে চট্টগ্রামের মানওষের হৃদয় জয় করে নিয়েছেন।