banner

শেষ আপডেট ২২ মে ২০১৮,  ২১:৩৩  ||   মঙ্গলবার, ২২ই মে ২০১৮ ইং, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

মানববন্ধনে অভিযোগ : সিএমপির সক্ষমতা না থাকায় মনিকা নিখোঁজ রহস্যের কোনো কূলকিনারা হচ্ছে না

মানববন্ধনে অভিযোগ : সিএমপির সক্ষমতা না থাকায় মনিকা নিখোঁজ রহস্যের কোনো কূলকিনারা হচ্ছে না

৪ মে ২০১৮ | ২১:৪০ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • মানববন্ধনে অভিযোগ :  সিএমপির সক্ষমতা না থাকায় মনিকা নিখোঁজ রহস্যের কোনো কূলকিনারা হচ্ছে না

ক্রাইম প্রতিবেদক : নিখোঁজ মনিকা বড়ুয়া রাধার দ্রুত সন্ধান ও পরিবারের নিকট ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন  বিভিন্ন শ্রেণি পেশার প্রতিনিধিরা। আজ শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও সমাবেশ থেকে এই দাবি জানানো হয়। একইসঙ্গে তাঁকে উদ্ধারে সর্বাত্মক অভিযানের দাবি জানানো হয়।

নিখোঁজ হওয়ার ২৩ দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও মনিকা উদ্ধার না হওয়ায় বক্তারা বিস্ময় প্রকাশ করেন।

তাঁরা বলেন, কোনো ষড়যন্ত্র বা দুর্ঘটনায় না পড়লে একজন মানুষ ২৩ দিন ধরে এমনি এমনি হাওয়া হয়ে যেতে পারে না। এ বিষয়ে প্রশাসনকে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে। তদন্তকে কোনো মহল প্রভাবিত করছে কিনা তা নিয়েও তারা উষ্মা প্রকাশ করেন তাঁরা।

বক্তারা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বলেন, এতদিন পেরিয়ে যাওয়ার পরও নিখোঁজ রহস্যের কোনো কূলকিনারা না হওয়াটাও আতঙ্কের। তাঁরা অনতিবিলম্বে মনিকাকে উদ্ধার করে পরিবারের হাতে ফিরিয়ে দেওয়ার জোর দাবি জানান।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রামের লিটল জুয়েলস স্কুলের গানের শিক্ষিকা মনিকা বড়ুয়া রাধা (৪৬) গত ১২ এপ্রিল বাংলা নববর্ষের একদিন আগে নগরীর লালখান বাজার এলাকা থেকে নিখোঁজ হন।

গোয়েন্দা তথ্যমতে, মোবাইল ফোনের রেকর্ড অনুযায়ী সর্বশেষ তাঁর অবস্থান ছিল  সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে লালখান বাজার মোড়ে। ওই সময় তিনি তার স্বামী দৈনিক পূর্বকোণের ক্রীড়া সাংবাদিক দেবাশীষ বড়ুয়ার সঙ্গে মোবাইলে কথা বলেন। এরপর থেকে তাঁর ফোনও বন্ধ। কোনো ধরনের খোঁজও মিলছে না।

গত ১৩ এপ্রিল সন্ধ্যা ৭টায় তার স্বামী খুলশি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। জিডি করার পর তদন্তে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি না থাকায় গত ২৮ এপ্রিল দেবাশীষ বড়ুয়া একটি অপহরণ মামলা দায়ের করেন। কিন্তু এখনো পুলিশ বা গোয়েন্দা সংস্থা মনিকার কোনো হদিস দিতে পারেনি।

বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) প্রেসিডিয়াম সদস্য লক্ষ্মী চক্রবর্তীর সভাপতিত্বে কর্মসূচি চলাকালে বক্তব্য দেন নিখোঁজ মনিকার ছোট বোন মন্টি বৈষ্ণব ও নন্দিতা বৈষ্ণব, চাকসুর সাবেক ভিপি শামসুজ্জামান হীরা, আইনজীবী হাসনাত কাইয়ূম, গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক জীবনানন্দ জয়ন্ত, মানবাধিকার কর্মী জাকিয়া শিশির, ক্ষেতমজুর সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট সোহেল আহমেদ, যুব ইউনিয়নের সভাপতি হাসান হাফিজুর রহমান সোহেল, সাংবাদিক নেতা রাজু আহমেদ, উদীচীর সহ সাধারণ সম্পাদক সঙ্গীতা ইমাম, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি জিলানী শুভ, সাবেক ছাত্রনেতা বাকী বিল্লাহ প্রমুখ।