banner

শেষ আপডেট ২৬ জুন ২০১৯,  ২১:১৬  ||   বৃহষ্পতিবার, ২৭ই জুন ২০১৯ ইং, ১৩ আষাঢ় ১৪২৬

শেয়ারবাজারে লেনদেন বাড়ার চেয়ে কমছে বেশি

শেয়ারবাজারে লেনদেন বাড়ার চেয়ে কমছে বেশি

২২ মার্চ ২০১৬ | ১৮:০২ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • শেয়ারবাজারে লেনদেন বাড়ার চেয়ে কমছে বেশি

একদিন কিছুটা আশার আলো দেখিয়ে ফের দরপতনের ধারায় ফিরেছে দেশের শেয়ারবাজার। সোমবার আগের দিনের চেয়ে প্রধান শেয়ার বাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন বেড়েছিল ৯০ কোটি টাকা। অথচ একদিন পর সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবার ডিএসইতে লেনদেন কমেছে ১০৭ কোটি টাকা। এভাবে চলছে দেশের শেয়ারবাজার। অর্থাৎ লেনদেন বাড়ার চেয়ে বেশিই কমছে।

মঙ্গলবার দুই স্টক এক্সচেঞ্জেই সব ধরনের মূল্য সূচকের পাশাপাশি কমেছে টাকার অংকে লেনদেনের পরিমাণ। একই সঙ্গে দর হারিয়েছে লেনদেন হওয়া বেশির ভাগ কোম্পানির শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ড ইউনিটের। এর আগে সপ্তাহের প্রথম দুই কর্যদিবস দরপতনের পর গতকাল সোমবার কিছুটা ঘুরে দাঁড়ায় শেয়ারবাজার। তার একদিন পর ফের পতন হওয়ার বাজারে অস্থিরতা বাড়ছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, মঙ্গলবার দিন শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের চেয়ে ৩১ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৪১০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এছাড়া শরিয়া সূচক ডিএসইএস ১০ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৬৮ পয়েন্টে এবং ডিএস৩০ সূচক ১৭ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৬৭৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

ডিএসইতে টাকায় লেনদেন হয়েছে ৩২৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকার শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের ইউনিট। যা আগের কার্যদিবসের চেয়ে ১০৭ কোটি টাকা কম। সোমবার ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ৪৩০ কোটি টাকা।

মঙ্গলবার ডিএসইতে মোট ৩১৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৯০টির, কমেছে ১৭৫টির আর অপরিবর্তিত আছে ৪৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দর।

অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএসসিএক্স ৬১ পয়েন্ট কমে ৮ হাজার ২৪৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। এছাড়া সিএসই৫০ সূচক ৮ পয়েন্ট কমে ৯৮৫ পয়েন্টে, সিএসই৩০ সূচক ১১৯ পয়েন্ট কমে ১২ হাজার ২০৯ পয়েন্টে, সিএএসপিআই সূচক ১০১ পয়েন্ট কমে ১৩ হাজার ৫৭২ পয়েন্টে এবং সিএসআই শরিয়াহ সূচক ১০ পয়েন্ট কমে ৯৩৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

সিএসইতে মোট ২৩৪টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের লেনদেন হয়েছে। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬৪টির, কমেছে ১৪৪টির আর অপরিবর্তিত আছে ২৬টি কোম্পানির শেয়ার দর। টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ২০ কোটি ৩১ লাখ টাকা।