banner

শেষ আপডেট ২ জুলাই ২০১৭,  ২০:১২  ||   সোমবার, ২৫ই সেপ্টেম্বর ২০১৭ ইং, ১০ আশ্বিন ১৪২৪

বিনা ভোটের সরকারের আরেকটি হিংসাশ্রয়ী অসুস্থ রাজনীতিরই বহিঃপ্রকাশ–খালেদা :: দি ক্রাইম :: অপরাধ দমনে সহায়ক ::

বিনা ভোটের সরকারের আরেকটি হিংসাশ্রয়ী অসুস্থ রাজনীতিরই বহিঃপ্রকাশ–খালেদা

১৮ জুন ২০১৭ | ২০:৫০ |    নিজস্ব প্রতিবেদক
  • বিনা ভোটের সরকারের আরেকটি হিংসাশ্রয়ী অসুস্থ রাজনীতিরই বহিঃপ্রকাশ–খালেদা

ঢাকা অফিস: পাহাড় ধস বিপর্যয়ে উপদ্রুত এলাকায় পদক্ষেপ গ্রহণে সরকারের ব্যর্থতা ঢাকতেই মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ওপর হামলা হয়েছে বলে দাবি করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।আজ রোববার রাঙামাটিতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ দলটির নেতাদের ওপর হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এই বিবৃতি দেন খালেদা জিয়া।

তিনি বলেন, ‘পাহাড়ে তাচ্ছিল্যপূর্ণ ব্যবস্থাপনায় দেশব্যাপী ক্ষমতাসীনদের বিরুদ্ধে যে ধিক্কার উঠেছে, সেখান থেকে জনগণের চোখ অন্যত্র সরিয়ে দেওয়ার জন্যই বিএনপি মহাসচিবের গাড়িবহরে হামলা করা হয়েছে।’

পাহাড় ধসে রাঙামাটির বিধ্বস্ত জনপদ ও মাটি চাপায় হতাহতদের পাশে দাঁড়াতে রোববার মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে বিএনপির কেন্দ্রীয় টিম রাঙামাটি যাওয়ার পথে রাঙ্গুনিয়ায় ইসাখালী নামক স্থানে গাড়ি  বহরের ওপর বর্বরোচিত হামলা চালানো হয়।

হামলায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, তার সফরসঙ্গী বিএনপি জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপাসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য মেজর জেনারেল (অব,) রুহুল আলম চৌধুরী, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক (চট্টগ্রাম বিভাগ) মাহবুবের রহমান শামীম, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. মীর ফাওয়াজ হোসেন শুভ, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বকরসহ প্রায় ১৫ জন আহত হয়েছেন বলে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

খালেদা জিয়া বলেন, ‘বৃহত্তর চট্টগ্রামে যেসব এলাকায় পাহাড় ধসে মানববিধ্বংসী মহাবিপর্যয় সৃষ্টি হয়েছে, সেখানে বিএনপির উচ্চপর্যায়ের নেতাদের সমন্বয়ে গঠিত টিমকে ঢুকতে না দিয়ে নেতাদের গাড়িবহরে হামলা, উপদ্রুত এলাকায় যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণে সরকারের ব্যর্থতা ঢাকারই কৌশল।’

‘বিএনপির গাড়িবহরে আক্রমণ সরকারের পতনের আগে শেষ মরণকামড়। তবে বর্তমান শাসকগোষ্ঠীর সকল অপকর্মের হিসেব নিতে জনগণ অপেক্ষা করছে। আর এই অপেক্ষা বেশি দীর্ঘ হবে না।”

এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, ‘বিএনপি মহাসচিবসহ নেতাদের গাড়িবহরে হামলা ও শারীরিকভাবে আক্রমণ করে আহত করার যে নজির সৃষ্টি করা হলো, তা গণতন্ত্রের শেষ চিহ্নটুকু মুছে ফেলতে সরকারের একটি উদ্যোগ। এই ঘটনা বর্তমান বিনা ভোটের সরকারের আরেকটি হিংসাশ্রয়ী অসুস্থ রাজনীতিরই বহিঃপ্রকাশ।’

‘আওয়ামী লীগ গুণ্ডামিকেই আশ্রয় করেছে টিকে থাকার অবলম্বন হিসেবে। তাই শান্তি, স্বস্তি ও জননিরাপত্তাকে বিসর্জন দিয়ে নৈরাজ্যকেই বেছে নিয়েছে। এভাবে ভয়ভীতি, শঙ্কা ও আতঙ্কের পরিবেশ বজায় রেখে গণপ্রতিবাদকে চাপা দিয়ে রাখাটাই হচ্ছে তাদের মূল লক্ষ্য।”

তিনি বলেন, ‘উপদ্রুত এলাকায় অসহায় মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে সরকার প্রধান বিদেশ সফরেই সময় কাটিয়েছেন। দুর্গত এলাকার অসহায় বিপর্যস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর বিষয়টি নিয়ে ভ্রুক্ষেপহীন থেকেছেন সরকার প্রধান। সেজন্য বারবার প্রাকৃতিক দুর্যোগে দুর্ভোগে নিপতিত মানুষের পাশে আওয়ামী সরকার কোনো সময়ই দাঁড়ায়নি। এরা জনগণের বিপদে ও কষ্টে আনন্দ লাভ করে।’

 

Leave a Reply